মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল ‘বাহিনী রাজনীতি’ বিশ্বাস করেন না জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত নভেম্বর ১০, ২০১৯
মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল ‘বাহিনী রাজনীতি’ বিশ্বাস করেন না জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী

আহছানউল ইসলাম

মীরসরাই উপজেলা প্রতিনিধি

দীর্ঘদিন যাবৎ মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী। মাত্র ২৭ বছরে ১৯৯৯ সালের ইউপি নির্বাচনে ১৪ নং হাইতকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচনের মধ্য দিয়ে রাজনীতিতে তাক লাগানো এ নেতা কোন কালেও বিশ্বাস করেননি ‘বাহিনী রাজনীতি’ নামের নিজস্ব বলয়।

মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এক সদস্য জানান, জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী যতদিন রাজনীতি করছেন ততদিন নিজের জন্য কিছুই করেননি। বরং বলয় ও বাহিনী রাজনীতির উদ্ধে উঠে রাজনীতির অভিভাবক ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের সকল নির্দেশনা সুচারুভাবে সম্পন্ন করেছেন। সৃষ্টি করেননি নিজের আলাদা বলয় কিংবা বাহিনী। আজ যারা তাঁর বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে তারা নিজস্ব বলয় সৃষ্টির আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়েছেন। যা বিগত দিনেও অনেকেই চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে।

জানা গেছে, আগামী ১৬ নভেম্বর শনিবার মিঠাছরা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হবে মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল। এবারের কাউন্সিলে সভাপতি পদে যাদের নাম আলোচিত হচ্ছে তাদের মধ্যে ত্যাগ ও অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে সবচে বেশি যোগ্য মনে করা হচ্ছে তাঁকে। তাছাড়া মিরসরাইয়ের সংসদ সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের বিশ্বাস ও আস্থার জায়গায় স্থান করে নিয়েছেন তিনি রাজনৈতিক মাঠে এমনটাই অনুমেয় হচ্ছে।

এক নজরে চৌধুরী:
১৯৯৯ সালে উপজেলার হাইতকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মাত্র ২৭ বছর বয়সে বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন স্থানীয় চৌধুরী বাড়ির সন্তান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী। সেমময় স্থানীয় রাজনীতিতে ব্যাপক আলোচিত হয় এ তরুণ তুর্কির নাম। এরপর তাঁক আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। পরপর টানা চারবার তাইতকান্দি ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে নিজের যোগ্যতার প্রমাণ তিনি দিয়েছেন।

জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী ২০০০ সালে মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের (আলী-হুদা) পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০৪ সালে (আলী-হুদা) পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০১২সালে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এরপর শুরু হয় আরেক নতুন পথচলা। সেখানেও তিনি দায়িত্ব পালন করেন দীর্ঘ ৭ বছর। এ সাত বছরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দুই দুইবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আরহণ করেন। এসময়গুলোতে মিরসরাই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের নৌকা প্রতীকে পক্ষে দক্ষতা ও বিচক্ষণতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। যা আজও স্থানীয় রাজনীতিতে প্রসংসার দাবিদার।

সামাজিক কাজেও অতুলনীয় জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী। তিনি ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে নির্বাচিত হন মিরসরাই উপজেলা চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি। পরবর্তীতে তাঁর ব্যাপ্তি বেড়েছে। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম জেলা চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া তিনি দীর্ঘ ২৫ বছর হাইতকান্দি ইউনিয়নের কমর আলী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

Sharing is caring!