ফেনীতে বিদেশী ফলের চাহিদা বাড়ছে

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত জানুয়ারি ২৫, ২০২০
ফেনীতে বিদেশী ফলের চাহিদা বাড়ছে

নুরুল হুদা মিয়াজী রাসেল

ফেনী শহর প্রতিনিধি :

ফেনীর বাজারে দেশী ফলের পাশাপাশি বিদেশী ফলের চাহিদা বাড়ছে। শহরের সুপারশপ থেকে শুরু করে ফুটপাতেও বিক্রি হচ্ছে এসব রকমারী ফল। চড়া দামে বিক্রি হওয়ায় ক্রেতারা অসন্তুষ্ট।
জানা গেছে, প্রায় ১২ প্রকার ফল বিক্রি করছে দোকানীরা। তারা থাইল্যান্ডের রামু বুটম প্রতিকেজি বিক্রি করছে ৭৫০ টাকায়, পারছিমন ৬৫০টাকা, জাম্বু ৭শ টাকা, লংকা ৬৫০ টাকা, কিউফল ৬৫০ টাকা, আলু বোখারা ৬৫০ টাকা, ড্রাগন ৬৫০ টাকা, চেরি ম্যাংগো ১ হাজার ২শ টাকা, আদুয়া ১ হাজার ২শ টাকা, কলমি ৬শ টাকা, মরিয়াম ৫শ টাকা। এছাড়াও সৌদি আরব সহ বিভিন্ন দেশের খেজুর বিক্রি করছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হারে আলজেরিা ৪শ টাকায় বিক্রি করা হয়।
শহরের শহীদ শহীদুল্লা কায়সার সড়কের জহিরিয়া মসজিদের সামনে দেখা গেছে, মো: শাহীন নামের এক বিক্রেতা নানা রকম বিদেশী ফল বিক্রি করছে। উৎসুক লোকজন ফলের নাম ও দাম জানতে প্রতিদিন ভীড় করছে। অনেক ক্রেতা নতুন ফল দেখে স্বাদ পেতে ফল ক্রয় করছে।
সড়কের বিপরীতে আরেক বিক্রেতা মো: নুর নবী কয়েক প্রকার বিদেশী ফল বিক্রি করছে । তবে ক্রয় না করলেও অনেক পথচারী ফলের নাম ও দাম জানতে আগ্রহী।
বিক্রেতা নুর নবী আওয়ার বাংলাদেশ কে জানান, রাজধানীর বনানী থেকে সরাসরি ফলগুলো পাইকারী ক্রয় করে ফেনীতে খুচরা দামে বিক্রি করছেন। প্রতিদিন এ ফলের ক্রেতাসমাগম বাড়ছে। গত ৫ মাস যাবত ফেনী শহরে থাইল্যান্ড ও চায়না থেকে আমদানী হওয়া হরেক রকম ফলের বিক্রি বেড়েছে বলে তিনি জানান।

Sharing is caring!