সোনাগাজীর চান মিয়ার দোকানে নির্মাণের দুই বছর পর ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু হাসপাতালের উদ্বোধন

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত অক্টোবর ৩০, ২০১৯
সোনাগাজীর চান মিয়ার দোকানে নির্মাণের দুই বছর পর ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু হাসপাতালের উদ্বোধন

শহীদুল ইসলাম মামুন

সোনাগাজী ফেনী প্রতিনিধি:

ফেনীর সোনাগাজীতে নির্মাণের দুই বছর পর ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু হাসপাতালের উদ্বোধন করা হয়েছে। ২ জন চিকিৎসক ১০ জন নার্স ও কর্মকর্তা সহ ১৫ জন জনবল থাকার কথা থাকলেও দুইজন নার্স ও একজন আয়া দিয়ে চালু হলো হাসপাতালটির স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম।

ফেনী-৩ আসনের সাংসদ, জাতীয়পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য লে. জেনারেল অব. মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চরদরবেশ ইউনিয়নের চাঁন মিয়ার বাজার ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু হাসপতালটি উদ্বোধন করেন।

বুধবার সকালে হাসপাতাল মাঠে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফেনীর স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক পিকেএম এনামুল করিম।
উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সাহিদা হোসেনের সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের পরিচালক মো. শরীফ, ডা. ফাহমিদা সুলতানা, উপ-পরিচালক আমিনুল ইসলাম, স্বাস্থ্য প্রকৌশলী সাইদুর রহমান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নূরুল আমিন, সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মঈন উদ্দিন আহমেদ, ফেনী সদর উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. ইফতেখার হোসেন ও বিএম এ ফেনী জেলা সভাপতি ডা. সাহেদুল ইসলাম কাওসার।
অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা জাতীয়পার্টির সভাপতি হাজী আবু সুফিয়ান, সাধারন সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম ভুট্রো, চরচান্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মিলন, চরদরবেশ ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি শাহাব উদ্দিন ও দলিল লেখক আবদুল জলিল প্রমূখ।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের অর্থায়নে এবং স্বাস্থ্য ও প্রকৌশল অধিদফতরের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ৫৫ শতক জমির উপর ২০১৬-১৭ অর্থবছরে এই হাসপাতালটি নির্মাণ করা হয়। ২০১৭ সালে নির্মাণ কাজ শেষ হলেও জনবল সংকটের কারণে হাসপাতালটি উদ্বোধন করা হয়নি।

চরদরবেশ ইউনিয়নের চরসাভিকারী গ্রামের সমাজ সেবক চাঁন মিয়া ও তার ভাই আবদুল মালেক হাসপাতালটি স্থাপনের জন্য ৫৫ শতক মুক্ত হস্তে দান করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর ওই হাসপাতালে দিনব্যাপী স্বাভাবিক প্রসব সেবা জোরদারে অবহিতকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Sharing is caring!