করোনা প্রতিরোধে সামাজিক সংগঠন আল মাদানী ফাউন্ডেশনের ব্যাপক কার্যক্রম

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মার্চ ৩১, ২০২০
করোনা প্রতিরোধে সামাজিক সংগঠন আল মাদানী ফাউন্ডেশনের ব্যাপক কার্যক্রম

সৈয়দ বেলালী

বিশেষ প্রতিনিধি:

ভয়াবহ করোনাভাইরাস থেকে জনগণকে সতর্কতা অবলম্বনে রাজধানীর উত্তর মুগদায় অবস্হিত ঐতিহ্যবাহি সামাজিক সংগঠন আল মাদানী ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ব্যাপক কার্যক্রম হাতে নিয়েছে।

কার্যক্রমের ব্যপারে ফাউন্ডেশনের সভাপতি মো.ইমতিয়াজ উদ্দীন শিব্বির মাজহারী বলেন, আল-মাদানী ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের তত্ত্বাবধানে ৮ জন কর্মী দৈনিক স্বেচ্ছাশ্রমে আত্বমানবতার সেবায় কাজ করে চলেছে। খিলগাঁও, বাসাবো, বৌদ্ধ মন্দির, মুগদা, মান্ডা, মানিকনগর ও ধলপুর এলাকায় করোনা প্রতিরোধে কাজ করে যাচ্ছে।

দৈনিক সকালে চারটি স্প্রে মেশিনের সাহায্যে করোনা ভাইরাস নিধনের লক্ষে বিলিচিং পাউডার ও স্যাভলন মিশ্রিত স্প্রে করা হচ্ছে।
বিভিন্ন মসজিদের মুসল্লিদের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজেশন স্প্রে করা হচ্ছে।
এবং প্রত্যেহ বাদ আসর হতে মাগরিব পর্যন্ত রাস্তায় চলন্ত রিকশাওয়ালা ভাই ও প্যাসেঞ্জারদেরকে হ্যান্ড স্যানিটাইজেশন স্প্রে করা হচ্ছে ।

এই ছাডাও খাদ্য সামগ্রী বিতরনের জন্য দিনমজুর ও হত দরিদ্রদের লিস্ট এর কাজ চলমান রয়েছে।

তাছাড়া প্রত্যেহ দুই বেলা সেনাবাহিনী ও পুলিশের সমন্ময়ে জনসচেতনতায় হ্যান্ড মাইকিং করে সচেতন করা হচ্ছে।
এই সেচ্ছাশ্রমে যারা অক্লান্ত মেহনত কর চলেছেন তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন, ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মানবতাবাদী মো.ইমতিয়াজ উদ্দীন শিব্বির মাজহারী, মহাসচিব মাও.মো.ফয়েজ উল্লাহ,
মাও.কাওছার আহমদ ফরাজী,
মাও. ইমদাদ উল্লাহ,মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম,মুহাম্মদ তরিকুল ইসলাম তুষার,মুহাম্মদ হাবিব এহসান ও
হাফেজ মাওলানা নূর মোহাম্মদ মাসুদ প্রমুখ।

ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টা সৈয়দ জহির উদ্দীনের কাছে ফাউন্ডেশনের লক্ষ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ এলাকার তরুণ যুবকদের মাঝে ইসলামের সহী দাওয়াত পাৌছানো, যার কারনে আমরা প্রতি বছর তিন দিন ব্যাপি দেশের শির্ষস্হানীয় আলেমদের উপস্হিতিতে বিশাল ইসলামী সম্মেলন করে থাকে।
আমরা চাই, তরুণ যুবকরা মাধক মুক্ত জীবণ গঠন করে মসজিদ মুখি হয়ে সমাজকে আদর্শ সমাজ হিসেবে গঠন করুন, এতে করে সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে ইনশা আল্লাহ।
আমি আহবান করবো, দেশের এই ক্রান্তিকালে সকল সামাজিক সংগঠন ও বিত্তবান ব্যাক্তিরা এগিয়ে আসুক, সমাজের হত দরিদ্র মানুষের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিক।

Sharing is caring!