মারকাযুস সাহাবা বাংলাদেশ এর নাম পরিবর্তন

আওয়ার বাংলাদেশ ২৪
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০
মারকাযুস সাহাবা বাংলাদেশ এর নাম পরিবর্তন

আলমগীর ইসলামাবাদী 

বিশেষ প্রতিনিধি

মারকাযুস সাহাবা বাংলাদেশ এর নাম পরিবর্তন হয়ে এখনথেকে ‘শানে সাহাবা কাউন্সিল বাংলাদেশ। নামকরণ করা হয়েছে।

সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, সিনিয়র উপদেষ্টা আল্লামা ওবায়দুল্লাহ হামযা, মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী এবং জামিয়া পটিয়া চট্টগ্রামের প্রধান মুফতি হাফেজ আহমাদ উল্লাহর সাথে পরামর্শ সাপেক্ষে সংগঠনের নতুন নাম চূড়ান্ত করা হয় ‘শানে সাহাবা কাউন্সিল বাংলাদেশ।

এ বিষয়ে আজ চট্টগ্রামে দেশের দুই শীর্ষ মাদরাসা হাটহাজারী ও পটিয়ায় শানে সাহাবা’র উপদেষ্টা মণ্ডলীর সাথে পৃথকভাবে জরুরী বৈঠকে মিলিত হন সংগঠনের আমীর মুফতি শামীম আল-আরকাম, মহাসচিব হাফেজ মাওলানা শরীফ উল্লাহ তারেকী, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি ও সর্বোচ্চ কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য মাওলানা সানাউল্লাহ নূরী মাহমুদী, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সেক্রেটারি ও সর্বোচ্চ কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য হাফেজ মাওলানা মনছুরুল হক জিহাদী এবং কেন্দ্রীয় দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক, সর্বোচ্চ কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য মাওলানা ইন’আমুল হাসান ফারুকী ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় দায়িত্বশীল মাওলানা আখতার হোসাইন রাফিদ।

বৈঠকে শানে সাহাবার দায়িত্বশীলগণ সংগঠনটির পূর্বের নামে অনেকের আপত্তির কথা তুলে ধরলে উপদেষ্টা মন্ডলী বলেন, প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের সাথে পয়গম্বর বা সাহাবাদের নাম থাকাতে কোন প্রকার অসুবিধা নেই।

এ বিষয়ে জামিয়া পটিয়ার প্রধান মুফতি ও সিনিয়র মুহাদ্দিস হাফেজ আহমাদ উল্লাহ সাহেব বলেন, সাহাবাদের যুগেও বহু মসজিদ ও প্রতিষ্ঠানের নামের সাথে বরকতের জন্য বিজ্ঞ সাহাবাদের নাম ব্যবহারের প্রমাণ রয়েছে। সুতরাং প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনে সাহাবাদের নাম থাকার মানে এই নয় যে, সাহাবাগণ উক্ত প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনে হাজির রয়েছেন। কেউ চাইলে সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের নামেরসাথে সাহাবাদের নাম যেমন; মারকাযুস সাহাবা, মাদরাসাতুস সাহাবা, জামিয়াতুস সাহাবা, মারকায আবু বাকার, মারকায উমারসহ সাহাবাদের নাম সংযুক্ত করতে পারবে।

একইমত প্রকাশ করেন শানে সাহাবা’র প্রধান উপদেষ্টা ও হাটহাজারী মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী এবং অপর উপদেষ্টা মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী। তারা দু’জন মজলিসে শানে সাহাবা, জমিয়তে শানে সাহাবা এবং মারকাযে শানে সাহাবা রাখা যেতে পারে বলে পরামর্শ দেন। যদিও তারা দুজনই নতুন নাম নির্ধারণ বিষয়ে
শানে সাহাবার উর্ধতন দায়িত্বশীলগণকে এখতিয়ারের অনুমতি দিয়ে বলেন, প্রস্তাবিত তিন নাম ছাড়া চাইলে পূর্বের নাম অথবা অন্যকোন নাম রাখা যেতে পারে।

তবে একই বিষয়ে আল্লামা ওবায়দুল্লাহ হামযা ‘মারকাযুস সাহাবা বাংলাদেশ’ ও ‘শানে সাহাবা কাউন্সিল বাংলাদেশ’ নিয়ে গভীরভাবে আলোকপাত করেন। এসময় তিনি শানে সাহাবা’র জাতীয় ও আন্তর্জাতিক কর্মপরিকল্পনার কথা তুলে ধরে সংগঠনের নাম ‘শানে সাহাবা কাউন্সিল বাংলাদেশ।’ হিসেবে প্রস্তাব করেন, যা পরবর্তীতে প্রধান উপদেষ্টা ও অন্যন্য উপদেষ্টাগণসহ শানে সাহাবার সর্বোচ্চ কার্যনির্বাহী পরিষদ মজলিসে শানে সাহাবা’য় চূড়ান্ত অনুমোদন পায়।

তাই এখন থেকে সাহাবাদের জীবনাদর্শ প্রচার ভিত্তিক দাওয়াতি সংগঠন মারকাযুস সাহাবা বাংলাদেশ পরিবর্তন হয়ে নতুন নাম -‘শানে সাহাবা কাউন্সিল বাংলাদেশ’ নামে পরিচালিত হবে। ইনশাআল্লাহ।

Sharing is caring!