শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও তাগুতের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবো ইনশাআল্লাহ: আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ১, ২০২০
শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও তাগুতের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবো ইনশাআল্লাহ: আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী

আতাউর রহমান আলমপুরী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার সহকারি পরিচালক আল্লামা হাফেজ জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, ইসলামই একমাত্র শান্তির ধর্ম। এবং আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বিশ্ববাসীর জন্য রহমত স্বরূপ পৃথিবীতে আগমন করেছিলেন। ইসলাম সকলকে শান্তির বার্তা দেয়। কিন্তু বর্তমানে শান্তির ধর্ম ইসলামের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী চতুর্মুখি ষড়যন্ত্র চলছে। এসব ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় ওলামায়ে কেরাম ও তৌহিদী জনতাকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।
ঢাকার সাইনবোর্ড সংলগ্ন মারকাজুল হুদা আল ইসলামিয়া মাদরাসার দুইদিন ব্যপী বার্ষিক ইসলামি মহা সম্মেলনের ২য় দিন প্রধান অতিথির আলোচনাকালে তিনি এ কথা বলেন।
সাইনবোর্ড জামেয়া ইবরাহীমিয়ার প্রিন্সিপাল ও শায়খুল হাদীস আল্লামা মুফতি শফিকুল ইসলাম এবং বারিধারা মাদরাসার প্রিন্সিপাল ও শায়খুল হাদীস আল্লামা নুর হুসাইন কাসেমী সাহেবের সভাপতিত্বে দুই দিন ব্যাপি উক্ত ইসলামি মহা সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন, মাদরাসায়ে নুরে মদীনার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মাওলানা নরুল ইসলাম ওলিপুরী, মাওলানা জুনায়েদ আল হাবিব, শায়খুল হাদীস আল্লামা মামুনুল হক, মাওলানা আব্দুল খালেক শরীয়তপুরী, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুছ ফারুকী, মাওলানা মাহমুদুল হাসান গুনবি প্রমুখ

প্রধান অতিথির আলোচনায় হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী আরো বলেন, ভারতে মুসলমানদের উপর একের পর এক ষড়যন্ত্রে হচ্ছে। উগ্র হিন্দুত্ববাদী জালিম মোদি সরকার ভারতের মুসলমানদের ওপর অমানবিক জুলুম নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে।
ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলুপ্তির মাধ্যমে কাশ্মীরের বিশেষ স্বাতন্ত্র্য ও মর্যাদা কেড়ে নিয়ে কাশ্মীরি মুসলমানদের ওপর জুলুম চালিয়ে যাচ্ছে, মুসলমানদের পাঁচশত বছরের ঐতিহ্য লালনকারী ঐতিহাসিক বাবরী মসজিদের স্থানে রাম মন্দির নির্মাণের রায় দিয়ে বিশ্বমুসলিমের কলিজায় আঘাত করেছে। সম্প্রতি মুসলিমবিরোধী গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে বিতর্কিত নাগরিকত্ব বিল পাশ করে ভারতকে অনিশ্চিত গন্তব্যের দিকে ঠেলে দেওয়া হয়েছে ।
দাঙ্গাবাজ রক্তপিপাসু জালিম মোদি মুসলমানদেরকে ভারত ছাড়া করার হীন ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। সেই চক্রান্তের অংশ হিসেবে নাগরিকত্ব বিল পাশ করেছে।
জুনায়েদ বাবুনগরী আরো বলেন, আজ সমগ্র বিশ্বজুড়ে এ নাগরিকত্ব বিলের বিরুদ্ধে নিন্দার ঝড় বইছে, আমাদেরও দাবী সুস্পষ্ট,অনতিবিলম্বে এই মুসলিম বিরোধী নাগরিকত্ব বিল বাতিল করতে হবে, ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদের জায়গায় পুনরায় মসজিদ নির্মাণের রায় দিতে হবে এবং ভারতের মুসলমানদের ওপর সর্ব প্রকার জুলুম নির্যাতন বন্ধ করতে হবে।

জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য সহ পৃথিবীর বিভিন্ন রাষ্ট্র মুসলিম বিরোধী এ বিতর্কিত নাগরিকত্ব বিলের ব্যপারে ক্ষোভ জানিয়েছে উল্লেখ করে হেফাজত মহাসচিব বলেন, এ নাগরিকত্ব বিলে মুসলমানদের ওপর অবিচার করা হয়েছে। বাংলাদেশ ৯০% মুসলিম অধ্যুষিত দেশ হিসেবে এ বিলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করার উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য সরকারের প্রতি আহবানও জানান আল্লামা বাবুনগরী।

হেফাজত মহাসচিব আরো বলেন, মুসলমানদের ঈমান-আক্বিদা নষ্ট করতে আজ কাদিয়ানী, হেযবুত তওহীদ এবং উগ্রবাদী হিন্দুদের সংগঠন ইসকন, ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে চতুর্মুখী ষড়যন্ত্র করছে।সুতরাং বিশ্বনবী সা.এর অবমাননা বন্ধে মৃত্যুদন্ডের বিধান রেখে জাতীয় সংসদে আইন পাশ করতে হবে, আক্বিদায়ে খতমে নবুওয়তকে অস্বীকারকারি কাদিয়ানিদেরকে
অনতিবিলম্বে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে। এবং হেযবুত তওহীদ ও উগ্র হিন্দু সংগঠন ইসকনকে নিষিদ্ধ করে বাংলাদেশে তাদের সমস্ত কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে।
নাহয় বিশ্বনবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের রক্তমাখা ধর্ম দ্বীন ইসলামকে হেফাজত করার জন্য প্রয়োজনে রাজপথে নিজের বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দেবো ইনশাআল্লাহ।

Sharing is caring!