কওমিবোর্ড ও দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের প্রতি বিনীত অনুরোধ- সৈয়দ হাবীব উল্লাহ বেলালী

আওয়ার বাংলাদেশ ২৪
প্রকাশিত এপ্রিল ২০, ২০২১
কওমিবোর্ড ও দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের প্রতি বিনীত অনুরোধ- সৈয়দ হাবীব উল্লাহ বেলালী

বিগত কয়েক বছর থেকে কওমি মাদ্রাসায় বেয়াদব ও উশৃংখল ছাত্রদের একটি প্রজন্ম তৈরী হয়ছে, এটা স্বীকার করতে হবে।

এদের ব্যাপারে কওমির সকল শিক্ষা বোর্ড ও শীর্ষ ওলামায়ে কেরামকে কঠিন ও শক্ত হাতে সিদ্ধান্ত গ্রহন করতে হবে।
গুটিকয়েক বেয়াদব ও উশৃংখল ছাত্রদের জন্য কওমি এদারার ঐতিহ্য নষ্ট হতে দেওয়া যায় না।
হাজার বছরেরর এলমে দীনের ঐতিহ্য লালনকারী যে কওমি মাদ্রাসা ছিল শান্তি, শৃঙ্খলা ও আদর্শ ছাত্র গড়ার দুর্গ, আজ কতিপয় বেয়াদবের কারনে সে দুর্গ তাদের ঐতিহ্য হারাতে বসেছে !! এটা কোন ক্রমেই মানা যায় না।

তাই সকল কওমি শিক্ষাবোর্ড ও শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের প্রতি বিনীতভাবে অনুরোধ করছি, আপনারা শক্ত হাতে এই বেয়াদব ও উশৃংখল ছাত্রদের হাত থেকে কওমিকে উদ্ধার করুন কওমিকে পূর্বের ঐতিহ্যে ফিরে নিতে চেষ্টা করুন, এদের পিছনে যারা রয়েছে তাদের ব্যাপরেও কঠোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করুন।

আজকে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী দীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পটিয়া মাদ্রাসা নিয়ে সগীর চৌধুরী ভাইয়ের লিখা, একটি ঘটনা পড়ে মন দুমড়ে মুচড়ে যাচ্ছে, মানতেই পারছি না, এমন বেয়াদব উশৃংখল ছাত্র কিভাবে তৈরী হল? কাদের ইন্দনে তৈরী হল? এদের নেতৃত্বে কারা আছে? এদের খুঁজে বের করে বিষয়গুলো দ্রুত সমাধান করা জরুরী হয়ে পডছে।

এখনো সময় আছে নিয়ন্ত্রণ করার, সময়ক্ষেপণ করলে অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে, প্রয়োজনে বেয়াদব উশৃংখলগুলাকে চিন্তিত করে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করুন এবং কোন কওমি মাদ্রাসায় যেন এই বেয়াদবগুলো ভর্তি হতে না পারে সে ব্যাপারেও ব্যাবস্থা করুন।

প্লিজ আর সময় নষ্ট করবেন না, সামনে নতুন বছর আসছে, এখনই সিদ্ধান্ত গ্রহন করার উপযুক্ত সময়।

লেখক: সৈয়দ হাবিব উল্লাহ বেলালী

Sharing is caring!