সোলাইমানি হত্যার কঠোর প্রতিশোধ নেবে তেহরান

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত জানুয়ারি ৭, ২০২০
সোলাইমানি হত্যার কঠোর প্রতিশোধ নেবে তেহরান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইরানের কুদস ফোর্সের প্রধান লেঃ জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার কঠোর প্রতিশোধ নেবে তেহরান। ইরানি সেনাপ্রধান মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ বাকেরি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। তিনি রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগুর সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে এ হুঁশিয়ারি দেন।

জেনারেল বাকেরি বলেন, ইরান মধ্যপ্রাচ্য থেকে সকল মার্কিন সেনা বহিষ্কারের জন্য রাজনৈতিক ও আইনি প্রচেষ্টা চালানোর পাশাপাশি কঠোর প্রতিশোধ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইরানের সেনাপ্রধান বলেন, কয়েক মিলিয়ন ইরানি নাগরিক জেনারেল সোলাইমানির নামাজে জানাযায় অংশ নিয়ে আমেরিকার এ সন্ত্রাসী হামলার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ারই আহ্বান জানিয়েছে। কখন, কবে এবং কীভাবে সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধ নেয়া হবে তা ইরানই নির্ধারণ করবে বলে তিনি জানান।

গত শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) ভোররাতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে বিমান হামলা চালিয়ে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করে সন্ত্রাসী ও দখলদার মার্কিন সেনারা। ওই হামলায় ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হাশদ আশ-শাবির উপ প্রধান আবু মাহদি আল-মুহানদিস’সহ মোট ১০ জন শহীদ হন।

জেনারেল সোলাইমানির শাহাদাতকে মধ্যপ্রাচ্যে বড় ধরনের পট পরিবর্তনের সূচনা অভিহিত করে বলেন,ইরান ও রাশিয়াসহ বিশ্বের সকল স্বাধীনচেতা দেশের উচিত আমেরিকার এ ধরনের বর্বরোচিত পদক্ষেপের পুনরাবৃত্তি রোধ করার চেষ্টা করা।

টেলিফোনালাপে জেনারেল সোলাইমানির শাহাদাতে ইরানের সরকার, জনগণ ও সশস্ত্র বাহিনীকে শোক ও সমবেদনা জানান রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, জেনারেল সোলাইমানি ছিলেন একজন জাতীয় বীর এবং ইরাক ও সিরিয়া থেকে সন্ত্রাসবাদের মূলোৎপাটনের কাজে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন।

ইরানের এই জনপ্রিয় কমান্ডারের হত্যাকাণ্ডকে পৃথিবীর ইতিহাসে নজিরবিহীন উল্লেখ করে সের্গেই শোইগু বলেন, একটি দেশের শীর্ষস্থানীয় সেনা কর্মকর্তাকে তৃতীয় একটি দেশে হত্যার ঘটনা ইতিহাসে পাওয়া যায় না।

Sharing is caring!