সারাবিশ্বে করোনায় মৃত দেড় লক্ষ : আক্রান্ত ২২ লাখের বেশী

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত এপ্রিল ১৭, ২০২০
সারাবিশ্বে করোনায় মৃত দেড় লক্ষ : আক্রান্ত ২২ লাখের বেশী
  • হুসাইন আল আজাদ

বিশেষ প্রতিবেদন: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য স্বাস্থ্য কমিশনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে দেড় লক্ষ জনে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২২ লাখের ও বেশী। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫ লাখ ৫৩ হাজার ২৬০ জন।

এরই মধ্যে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২২০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থা ক্রমেই ভয়াবহ হয়ে উঠছে। এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ লাখ ৭৮ হাজার ২১০ জন। এ ছাড়া মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৩৫ হাজার জনের।

এদিকে বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর প্রথম দিকে কয়েকজন করে নতুন আক্রান্ত রোগীর খবর মিললেও এখন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এ সংখ্যা। সবশেষ হিসাবে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৮৩৮ । মারা গেছেন ৭৫ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৮ জন।

কোভিড-১৯ রোগে ২২ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হলেও, আসল সংখ্যাটা এর চেয়ে অনেক বেশি বলে বিশষজ্ঞেদের দাবী।

করোনাভাইরাসে এক লাখ মানুষ আক্রান্ত হতে প্রায় দেড় মাস সময় নেয়। সেটি ২২ লাখে রুপান্তরিত হতে সময় লাগলো আরো দুই মাসের মত।

গত প্রায় এক সপ্তাহের ব্যবধানে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে।

এর মধ্যে এক চতুর্থাংশ আক্রান্তই শনাক্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে, আর আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেক ইউরোপে।

যেভাবে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি

ডিসেম্বরের শেষে লি ওয়েনলিয়াং নামের চীনের এক এপিডেমোলজিস্ট বা মহামারি বিশেষজ্ঞ হুবেই প্রদেশেনর উহান শহরে উদ্ভূত হওয়া এক নতুন ভাইরাস সম্পর্কে চীনের অন্যান্য এলাকার চিকিৎসকদের সতর্কবার্তা পাঠানোর চেষ্টা করেন।

পরবর্তীতে অযথা আতঙ্ক ছড়ানোর অভিযোগে তাকে সতর্ক করে পুলিশ।

উহানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে ৬ই ফেব্রুয়ারি মারা যান ডক্টর লি।

৩১শে ডিসেম্বর প্রথমবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে চীন জানায় যে অজানা কারণে নিউমোনিয়া হয়ে তাদের দেশে মানুষের মৃত্যুর ঘটনা হচ্ছে।

Sharing is caring!