শিশু শ্রম বন্ধ করি: আদর্শ দেশ গড়ি

আওয়ার বাংলাদেশ ডেস্ক ২৪
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ৫, ২০২০
শিশু শ্রম বন্ধ করি: আদর্শ দেশ গড়ি
  • এমদাদুল হক

আজকের শিশু আগামির ভবিষ্যৎ। আজকের শিশু হতে পারে আগামি দিন, নজরুল, রবীন্দ্রনাথ কি’বা হতে পারে শেখ মুজিব কি’বা হতে পারে আগামি দিনের বড় বিজ্ঞানী। যার হাত ধরে ঠিকে থাকবে জ্ঞান বিজ্ঞান। যে বয়সে একটি শিশু বই খাতা নিয়ে স্কুলে যাওয়ার কথা সেই বয়সে অভাবের চাপে বই খাতা ছেড়ে থাকে কাজে নামতে হচ্ছে।এর প্রথম কারণ অসচেতন বাবা মা তাদের সেই ধৈর্য্য নেই যে নিজে কষ্ট করে সন্তানকে পড়ালেখা করাবে।তারা ভাবে ১০/১৫ বছর পড়ালেখা করিয়ে লাব নেই। সন্তান যা উপার্জন কবে তাতে সংসার চলবে।

দ্বিতীয়ত্ব মালিক গোষ্ঠী কম টাকায় এই শিশু শ্রমিক কাজে লাগাতে পারে। একজন বড় শ্রমিক দিয়ে যে কাজ করাতে হয় প্রচুর মজুরি দিয়ে তার চেয়ে অনেক কম মজুরি দিয়ে শিশু শ্রমিককে কাজে লাগানো যায়।
তৃতীয়ত্ব এদেশে আইন প্রয়োগের অভাব।শিশু শ্রম আইন ২০০০ এ বলা হয়েছে, শিশুকে দিয়ে কোনো কাজ করানো যাবেনা। যদি কাজ করাতে হয় তাহলে মালিকের টাকায় রেজিস্ট্রার ডাক্তারের কাছ থেকে ফিটনেস সাটিফিকেট কিনে কেবল সে ধরনের কাজ করাতে হবে যাতে শিশুর শারীরিক ও মানসিক বিকাশ সাধনে কোনো ক্ষতিকর প্রভাব না ফেলে।শিশুকে দিয়ে কোনো ভারি কাজ করানো যাবেনা। শিশুর শিক্ষা গ্রহণে যাতে কোনো ক্ষতি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
যদি উপরে উল্লেখিত বিষয়ের কোনোটি লঙ্ঘন হয় তাহলে থাকে আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।
এসো শিশু শ্রম বন্ধ করি,
অপরাধিদের আইনের আওতায় আনি।

Sharing is caring!