শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভাড়া মওকুফের দাবি ইশা ছাত্র আন্দোলন ভোলা জেলা নেতৃবৃন্দের

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মে ৪, ২০২০
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভাড়া মওকুফের দাবি ইশা ছাত্র আন্দোলন ভোলা জেলা নেতৃবৃন্দের

মুহা. মনিরুল ইসলাম মুহিন  

(ভোলা জেলা প্রতিনিধি)

আজ ৪ঠা মে ২০২০ইং সোমবার এক যুক্ত বিবৃতিতে এ আহবান জানান ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ভোলা জেলা দক্ষিণ-এর সভাপতি মুহাম্মদ ইকবাল হুসাইন ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইলিয়াস হাসান-এর যৌথ বিবৃতিতে মেস মালিক ও সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি এই সংকটপূর্ণ সময়ে মেস ভাড়া মওকুফের আহ্বান জানান।

যৌথ বিবৃতিতে তারা বলেন,
বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনা(COVID-19) ভাইরাসের কারণে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গত ১৮ই মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
করোনার কারণে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এখন বন্ধ। এই পরিস্থিতি ভালো না হলে আগামী সেপ্টেম্বরের আগে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যাবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই প্রতিষ্ঠান বন্ধের পর থেকে শিক্ষার্থীরা এখন বাসায় অবস্থান করছেন। অনেকটা উৎকণ্ঠা নিয়ে তারা দিনাতিপাত করছেন।
এই শিক্ষার্থীদের বড় একটা অংশ নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্য। তারা পরিবারের থেকে সামান্য টাকা নিয়ে কোনোমতে দিনাতিপাত করেন। অন্য যারা আছেন, তারাও খুব যে আলিশানভাবে থাকতে পারেন তা নয়। পরিবারের থেকে টাকা নিয়ে কতটা আর স্বস্থিতে খরচ করা যায়, সেটা সবারই বোধগম্য।

এই বাস্তবতায় গত একমাসের বেশি সময় ধরে শিক্ষার্থীরা বাসায় অবস্থান করছেন। তারা মেসে না থেকেও এরই মধ্যে এক মাসের ভাড়া পরিশোধ করতে কিরকম হিমশিম খাচ্ছে সেটাও দৃশ্যমান।

। কিন্তু এই সংকটে তাদের পক্ষে এভাবে ভাড়া দিয়ে যাওয়া কখনই সম্ভব হয়ে উঠবে না। কেননা, অনেক শিক্ষার্থীর বাবা দিনমজুর, রিকশাচালক বা কৃষক। তাদের পক্ষে করোনার এই কঠিন সময়ে এই ভাড়া চালিয়ে নেওয়া সম্ভব নয়। অন্য পেশায় থাকা অভিভাবকদের পক্ষেও এটা কঠিন। কেননা, তাদের সবারই কর্ম কমে গেছে বা তারা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। এমন সংকটে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত ভোলা শহরে থাকা শিক্ষার্থীদের মেস ও বাসা ভাড়া মওকুফ করা খুবই প্রয়োজন

এই পরিস্থিতিতে ভোলার চরফ্যাশন সহ পুরো শহরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রী মেস ভাড়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। মেস মালিকরা ভাড়া আদায়ের জন্য নানা ভাবে চাপ তো অবশ্যই দিবেন। অভিভাবকদের আয় বন্ধ হওয়ায় অনেক গরিব ছাত্র-ছাত্রী তাদের মেস ভাড়া পরিশোধ করতে সক্ষম হচ্ছেন না।
উক্ত পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে নেতৃদ্বয় ভোলার চরফ্যাশন সহ পুরো শহরের সকল মেস মালিকের প্রতি মেস ভাড়া মওকুফ করার জন্য মানবিক আহ্বান জানান।
এছাড়া চরফ্যাশন পৌরসভার সংশ্লিষ্ট সকলকে মেস ভাড়া মওকুফ করার বিষয়ে পদক্ষেপ নেবার আহ্বান জানান।

একইভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভাড়া মওকুফের দাবী জানিয়েছেন ইশা ছাত্র আন্দোলন ভোলা জেলা উত্তর শাখার সভাপতি আবুল হাশেম ও সাধারন সম্পাদক মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন। নেতৃদ্বয় এক যৌথ বিবৃতিতে মেস মালিক ও সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি এ সংকটপূর্ণ সময়ে মেস ভাড়া মওকুফের আহ্বান জানান।

Sharing is caring!