শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খানের মাদকের ঘটনা বিজেপির সাজানো

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত অক্টোবর ৭, ২০২১
শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খানের মাদকের ঘটনা বিজেপির সাজানো

ছেলে আরিয়ানের গ্রেফতারের ঘটনায় যথেষ্ট উদ্বিগ্ন বলিউডের সুপারস্টার শাহরুখ খান। উদ্বিগ্ন তার সহধর্মীনি গৌরী খানও। এ নিয়ে কংগ্রেস আগেই দাবি করেছিল, মুন্দ্রা বন্দরে মাদক উদ্ধারের ঘটনা থেকে নজর ঘুরিয়ে দিতেই নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) প্রমোদতরীতে অভিযান চালিয়েছে।

এ নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীনদল বিজেপির দিকে অভিযোগ তুলে এনসিপির মুখপাত্র ও মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী নবাব মালিক বলেছেন, ‘পুরো ঘটনাটা সাজানো।’ বলিউডকে কালিমালিপ্ত করতে এবং মহারাষ্ট্রের বিরোধী সরকারকে প্যাঁচে ফেলতে বিজেপি এনসিবিকে দিয়ে এসব করিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘শাহরুখ খানকে নিশানা করা হবে, এমন তথ্য সাংবাদিকদের কাছে এক মাস আগে থেকে ছিল।’

এছাড়া সমাজমাধ্যমে আরিয়ানের সাথে ভাইরাল হওয়া এক ব্যক্তির পরিচয় নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন মহারাষ্ট্রের এই মন্ত্রী। তার দাবি, আরিয়ানকে গ্রেফতারের দিন প্রমোদতরীতে এনসিবির সাথেই ছিলেন মণীশ ভানুশালী নামে ওই ব্যক্তি। অথচ এনসিবি জানিয়েছে, তিনি তাদের দফতরের কোনো কর্মকর্তা নন। তা হলে ওই ব্যক্তি কে?

নবাবের দাবি, তিনি বিজেপির সাথে যুক্ত। অমিত শাহ ও নরেন্দ্র মোদীর সাথে তার ছবি রয়েছে।

তবে এ ব্যাপারে মণীশ জানান, নবাবের অভিযোগ ঠিক নয়। বিজেপির সাথে ওই ঘটনার কোনো যোগসূত্র নেই।

এ দিকে প্রশ্ন উঠেছে আরো এক ব্যক্তির পরিচয় নিয়েও। গ্রেফতারের পরের দিন আরিয়ানের সাথে সেলফি তুলেছেন ওই ব্যক্তি। টুইটারে জনৈক আইনজীবী ওই ব্যক্তির ছবি পোস্ট করে দাবি করেছেন, তার নাম এসকে গোভাসাই। পেশায় ‘প্রাইভেট ডিটেকটিভ’। প্রশ্ন উঠছে, এনসিবির সাথে যুক্ত নন এমন ব্যক্তিরা কিভাবে ওই অভিযানে অংশ নিতে পারেন।

অবশ্য এ নিয়ে এনসিবি জানিয়েছে, প্রমোদতরীতে মাদক পার্টির আগাম তথ্যটুকু শুধু তাদের কাছে ছিল। সেখানে আরিয়ান খানের উপস্থিতির কথা তারা জানত না। শনিবার রাতে জাহাজে উঠে আরিয়ান ও তার বন্ধুদের সেখানে দেখতে পায় তারা। এর মধ্যে বলিউডকে নিশানা করার কোনো অভিসন্ধি খুঁজতে যাওয়া অমূলক।

মাদককাণ্ডে এ নিয়ে মোট ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে মঙ্গলবার গভীর রাতে মুম্বাই থেকে আরো একজনকে গ্রেফতারের কথা জানিয়েছে এনসিবি।

শাহরুখের পাশাপাশি এই কাণ্ডে আরিয়ানকে নিয়েও মানুষের কৌতূহল কম নয়। জানা গেছে, এনসিবির হেফাজতে বিজ্ঞানের কিছু বই চেয়েছিলেন শাহরুখ পুত্র। তাকে তা দেয়া হয়েছে। এনসিবি হেফাজতে বন্দীদের বাড়ি থেকে আনা খাবার দেয়ার অনুমতি নেই। তাই আরিয়ানের দু’বেলার খাবার আসছে এনসিবি দফতরের কাছে ‘ন্যাশনাল হিন্দু রেস্তোরাঁ’ থেকে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

Sharing is caring!