রাজনৈতিক দলের মধ্যে ধারাবাহিক লাশ দাফনে চরমোনাই পীরের দলের দৃষ্টান্ত স্থাপন

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত জুন ২৬, ২০২০
রাজনৈতিক দলের মধ্যে ধারাবাহিক লাশ দাফনে চরমোনাই পীরের দলের দৃষ্টান্ত স্থাপন
  • হাফেজ শেখ ফরিদ
  • বিশেষ প্রতিনিধি

করোনাভাইরাস মহামারি শুরু হওয়ার পর সারাদেশে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের তৎপরতায় করোনা আক্রান্ত হয়ে বা করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা ব্যাক্তিদের লাশের জানাযা-দাফন বা সৎকারের কাজ করা হলেও রাজনৈতিক দল হিসেবে ধারাবাহিক এককভাবে কেবল চরমোনাই পীরের দল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ( আইএবি)

আপন সন্তান যেখানে মা বাবার লাশ নিতে চায় না। বিভিন্ন স্থানে এলাকাবাসী লাশ কবর দিতে দেয়না। এই কঠিন সময়ে দেশের মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে দলটি।

দলটি সারাদেশে জানাযা-দাফনের কাজ ধারাবাহিকতায় করে যাচ্ছে। অন্তত ৩০ টি জেলায় ও ৩৫ টি উপজেলায় দলটির দাফন কাফনে স্বেচ্ছাসেবক টিম রাতদিন নিরলস কাজ করছে। শুধু চাঁদপুর জেলাতেই দলটির স্বেচ্ছাসেবক টিম ৮৫ টি লাশ দাফন কাফন করেছে।

শুধু মুসলমান নয়, হিন্দু ও খৃষ্টান ধর্মালম্বীদের সৎকার করে মানবতা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রেখেছেন তারা।

তবে এমন মানবিক জনকল্যাণমুখী মহানুভবতার কাজ করলেও দেশের মুল ধারার মিডিয়াগুলো দেখেও না দেখার ভান করে এড়িয়ে যাচ্ছে। অন্য কেউ একটি দাফন করলে যেভাবে হাইলাইটস করে প্রচার করে সেভাবে ইসলাম সংশ্লিষ্টদের বেলায় করেনা। দেশের মানুষকে আলেম ওলামাদের এই মহতী কাজ দেখাতে চায় না তারা। অথচ মনবতার বন্ধু দাবিদার তথাকথিত প্রগতিশীল সুশীল দাবিদার মানুষ গুলো বাড়িতে গৃহবন্দী হয়ে নিজেদের আড়াল করে রাখছেন।

এছাড়া কোন রাজনৈতিক দলই সারাদেশে করোনা মহামারির এ সময়ে এমন ধারাবাহিক কার্যক্রম অব্যহত রাখেনি। কোথাও একটি দাফন কাফন করে মিডিয়াতে হাইলাইটস হলেও পরে ধারাবাহিক আর করেনি।

এছাড়াও কওমি মাদ্রাসা ভিওিক কয়েকটি সামাজিক সেবামূলক সংগঠনও শুরু থেকেই ধারাবাহিক দাফন কাফন করে আসছে। তারা হল, আল মারকাযুল ইসলামী বাংলাদেশ, তাকওয়া ফাউন্ডেশন ( গাজী ইয়াকুব), ইকরামুল মুসলিমিন বাংলাদেশ, কিশোরগঞ্জে আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ্ ফাউন্ডেশন।

ত্রাণ বিতরণ থেকে শুরু করে লাশ দাফন-কাফন ও জনকল্যাণমুখী স্বেচ্ছাসেবামুলক কাজ সারাদেশেই করে যাচ্ছে পীর সাহেব চরমোনাই নেতৃত্বাধীন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ । অন্তত ৫৫টি জেলা এবং শতাধিক উপজেলায় ত্রাণ বিতরণ করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ( আইএবি) । অন্য আর কোন রাজনৈতিক দলকে ত্রাণ বিতরণে এতটা সক্রিয় দেখা যায়নি।

দাফন ও জানাযা কার্যক্রম সম্পর্কে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট নেতৃবৃন্দ জানান, করোনা দুর্যোগের এই সময় আমরা পীর সাহেব চরমোনাইর আহবানে সাড়া দিয়ে মানুষের জন্য কাজ করে যাওয়ার ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছি।

সে ধারাবাহিকতায়ই করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা নারী বা পুরুষদের জানাযা-দাফনে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। যেহেতু করোনা রোগীদের পাশে কেউ যেতে চায় না তাই তাদের জানাযা-দাফন নিয়ে বেশ মর্মান্তিক কথাও শোনা যায়। আমরা ঘোষণা দিয়েছি যে –করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা কেহই অবহেলায় জানাযা-দাফন হবে না। আমাদেরকে খবর দিলেই আমরা জানাযা দাফনের কাজে পৌঁছে যাবো ইনশাআল্লাহ

Sharing is caring!