মাদারীপুরে শিক্ষকের পিটুনিতে ছাত্রের মৃত্যু

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত নভেম্বর ৭, ২০১৯
মাদারীপুরে শিক্ষকের পিটুনিতে ছাত্রের মৃত্যু

তানিম ইবনে তাহের

স্টাপ রিপোর্টার:

শিক্ষকের পিটুনিতে মাদারীপুর সদর উপজেলার গাছবাড়িয়া কওমী মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র আসিফের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার বিকেলে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে মারা যায় আসিফ। আসিফ মাদারীপুর সদর উপজেলার কেন্দুয়া ইউনিয়নের শ্রীনাথদি গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দুই দিন আগে আসিফকে মাদারীপুর সদর উপজেলা গাছবাড়িয়া কওমী মাদ্রাসার শিক্ষক ইউসুফ আলী মারধর করে। দ্বিতীয় দফায় বুধবার আবার মারধর করে। এতে মারা যায় আসিফ। এ ঘটনায় হাসপাতাল থেকে আবুল বাসার নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। নিহত আসিফের বাবা আনোয়ার হোসেন বলেন, দুই দিন আগে আসিফকে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে মারধর করে মাদ্রাসার শিক্ষক। পরে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বাড়ি চলে যায়। মঙ্গলবার সকালে আবার আসিফকে মাদ্রসায় নিয়ে আসে ওর বাবা। বুধবার সকালে আসিফকে দ্বিতীয় দফায় মারধর করেন মাদ্রসার শিক্ষক ইউসুফ আলী। পরে বিকালে আমাদের কাছে ফোনে জানানো হয় আসিফ অসুস্থ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসে দেখি আমার ছেলে মারা গেছে। নিহত আসিফের চাচি রোকেয়া বেগম জানান, আসিফ দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র এবং সে মাদ্রাসাতে থাকতো। বুধবার সকালে মাদ্রাসার শিক্ষক ইউসুফ আলী আসিফকে পিটিয়ে আহত করে। পরে আবুল বাশার নামের অপর এক শিক্ষক আসিফকে মাদারীপুর সদর হাসপাতলে নিয়ে যায়। সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার অখিল সরকার জানান, বুধবার বিকালে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করে। মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সওগাতুল আলম জানান, গাছবাড়িয়া কওমী মাদ্রাসার আসিফ নামের দ্বিতীয় শ্রেণির আবাসিক এক ছাত্রকে মারধর আহত করা হয়। পরে আহতাবস্থায় তাকে বুধবার দুপুর তিনটার দিকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং বিকালে সে মারা যায়। হাসপাতাল থেকে এ ঘটনায় আবুল বাশার নামে এক শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

Sharing is caring!