মসজিদ খোলার ঘোষণা প্রত্যাহার না করলে কড়া ব্যবস্থার ঘোষণা

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত এপ্রিল ২৯, ২০২০
মসজিদ খোলার ঘোষণা প্রত্যাহার না করলে কড়া ব্যবস্থার ঘোষণা

ধর্ম প্রতিমন্ত্রীকে অভিযোগ জানান ০১৫৩৭-৭০৭০৭০ নম্বরে

  • আওয়ার বাংলাদেশ ডেস্ক

সরকারি নির্দেশনার বিরুদ্ধে গিয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম মহানগরে মুসল্লিদের জন্য মসজিদ খুলে দেয়ার ঘোষণা দেয়ায় ধর্ম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ বলেছেন, এ ঘোষণা প্রত্যাহার করা না হলে কড়া ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজ বুধবার (২৯ এপ্রিল) গণমাধ্যমকে এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ। এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) দুপুরে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বোর্ডবাজার আঞ্চলিক অফিস থেকে এক ভিডিও বার্তায় মেয়র মুসল্লিদের জন্য মসজিদ খুলে দেয়ার ঘোষণা দেন।

প্রতিমন্ত্রী এ বিষয়ে বলেন, তার (মেয়রের) এমন ঘোষণাকে আমরা চরম বিরোধী হিসেবে দেখছি। অত্যন্ত কঠিনভাবে প্রতিবাদ জানিয়েছি আমরা। তাকে বার্তা দেয়া হয়েছে, অতি অল্প সময়ের মধ্যে ওই ঘোষণা প্রত্যাহার করে সরকার যেভাবে চায় সেভাবে ঘোষণা দিতে। মনে হয় সেটা তিনি দিচ্ছেন।

প্রতিমন্ত্রী জানান, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলসহ স্থানীয় সব নেতা মেয়রের এই ঘোষণার বিপক্ষে। স্থানীয়ভাবে মাইকিং হচ্ছে, এমন ঘোষণা দেয়ার কোনো এখতিয়ার মেয়রের নেই, এই ঘোষণায় কান দেবেন না।

শেখ আবদুল্লাহ আরও বলেন, মেয়র জাহাঙ্গীর তার ঘোষণা প্রত্যাহারে কিছুটা সময় চেয়েছেন। সেই সময় পর্যন্ত আমরা অপেক্ষা করছি। প্রত্যাহার না করলে কড়া ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত পৌঁছেছে।

এর আগে মেয়র তার ঘোষণায় বলেন, গাজীপুর মহানগরীতে মাত্র কয়েকটি এলাকায় করোনাভাইরাস রয়েছে। বাকিগুলো পার্শ্ববর্তী উপজেলায়। যেহেতু গাজীপুরের গার্মেন্টস কারখানাগুলো খুলে দেয়া হয়েছে তাই এ রমজান মাসে এখন আর মসজিদ অল্পসংখ্যক মুসল্লির জন্য সীমাবদ্ধ রাখার কোনো প্রয়োজন নেই। শুক্রবারের জুমার নামাজ ও রমজানের তারাবির নামাজে মুসল্লিরা অংশ নিতে পারবেন। এতে সিটি কর্পোরেশনের কোনো বাধা থাকবে না।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে সরকার মসজিদে জামাত, জুমা ও তারাবিহ নামাজ আদায়ে উপস্থিতি সীমিত করেছিলো।

Sharing is caring!