ভোলা মনপুরায় রসুল(সা:) কে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে মিছিলে গুলি, আহত প্রায় ১০

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মে ১৬, ২০২০
ভোলা মনপুরায় রসুল(সা:) কে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে মিছিলে গুলি, আহত প্রায় ১০

ভোলা জেলা প্রতিনিধি: ভোলা জেলার অন্তর্গত মনপুরা উপজেলার ১নং মনপুরা ইউনিয়নের রামনেওয়াজ চৌমুহনী বাজার এলাকার ৭নং ওয়ার্ডের দুলাল চন্দ্রের ছেলে শ্রীরাম নামের এক হিন্দু যুবক মহানবী সা.কে নিয়ে কটূক্তি পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার করে। নবী করীম (সা) ও আয়েশা (রা:) কে জড়িয়ে অশ্লীল অশোভন ব্লগপোস্ট শেয়ার করে শ্রীরাম।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্থানীয় মুসুল্লিরা। এসময় বিক্ষুব্ধ জনতা মনপুরার চৌমুহনী বাজারের কুটূক্তিকারী শ্রীরামের দুইটি দোকান ভাংচুর করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার জন্য পুলিশ লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।

এসময় ২জন গুলিবিদ্ধ এবং প্রায় ১০ জন আহত হয়। আহতরা হলেন, করিম (২৫) ইব্রাহীম ( ৩৮) মোঃ ছাইফুল (৩৫) রাশেদ (১৯) জহিরুল (৩১) রাজিব(১৯) সানাউল্লাহ( ৩৩) আলাউদ্দিন (৪৭)।এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

কটুক্তিকারী বর্তমানে পুলিশের হেফাজতে আছে ।

মনপুরা থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেন পুরো মনপুরা এলাকায় পুলিশের টহল বাড়িয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিপুল চন্দ্র দাস জানান, কটূক্তিকারী যুবক পুলিশি হেফাজতে রয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা হলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে বিক্ষোভে পুলিশের অতর্কিত হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন ভোলা জেলা মুসলিম ঐক্য পরিষদের মুখপাত্র মাওঃ মিজানুর রহমান, সভাপতি মাওঃ আব্দুর রহমান খান তালুকদার, সহ-সভাপতি মুফতি ইয়াছিন নবীপুরী, মাওঃ তাজউদ্দিন ফারুকী, সম্পাদক মাওঃ মোবাশ্বেরুল হক নাঈম, সহ-সম্পাদক মাওঃ তরিকুল ইসলামসহ ভোলা জেলার সর্বস্তরের ওলামায়ে কেরাম। তারা এই ঘটনায় জড়িতদের অতি দ্রুত গ্রেফতার পুর্বক যথাযথ শাস্তির দাবি জানান।

Sharing is caring!