বিএনপির আচরণ দ্বিমুখী; সেতুমন্ত্রী

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০
বিএনপির আচরণ দ্বিমুখী; সেতুমন্ত্রী

আওয়ার ডেস্ক:

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপরসন খালেদা জিয়ার জামিনের ব্যাপারে দলটি দ্বিমুখী আচরণ করছে বলে অভিযোগ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য প্যারোলের আবেদন করলে শর্ত বিবেচনায় বিষয়টি ভাবা হবে।

আজ রবিবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সমসাময়িক ইস্যুতে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার বিষয়টি হচ্ছে আদালতের এখতিয়ার, এটি কোনো রাজনৈতিক মামলা নয়। বিনা বিচারে তো ডিটেনশনে দেওয়া হয়নি। দুর্নীতির মামলা আদালতের এখতিয়ার। মানবিক বিবেচনা করতে পারেন একমাত্র আদালত।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, পর্দার অন্তরালে কিছুই নেই, সবকিছু ওপেন সিক্রেট। কোনোটাই সিক্রেসি থাকবে না, সিক্রেসির কালচার নেই। এই যে দেখুন কালকে একটা টকশোতে শুনলাম মুক্তির বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব আওয়ামী লীগ সেক্রেটারি জেনারেলের সঙ্গে কথা বলতেই পারে। তার মুক্তির ব্যাপারে আলাপ করতে পারেন এবং প্রধানমন্ত্রীকে আমি জানাবো এটা স্বাভাবিক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির কোনো কোনো নেতা বলছেন, আন্দোলন করে তাদের নেত্রীকে মুক্ত করবেন। আবার কেউ বলছেন, তার শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে মানবিক দৃষ্টিভঙ্গিতে প্যারোলে মুক্তি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রিসভা একটা রদবদলের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি একটা রদবদল হয়েছে। সেখানে নতুন করে মেজর কোনো পরিবর্তন বা সম্প্রসারণ এই মুহূর্তে হবে না। এটা হয়তো আরো পরে হতে পারে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কাজের গতির জন্য সম্প্রসারণটা হচ্ছে। হয়তো আমি যে স্থানে আছি প্রধানমন্ত্রী মনে করছেন আমাকে অন্য আরেকটা স্থানে দিলে পারফরম্যান্সটা আরো ভালো হবে। এটা প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

Sharing is caring!