ফেলানী হত্যার রহস্য ২১ দিনেও উদ্ঘাটন করতে পারেনি পুলিশ

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত নভেম্বর ২২, ২০১৯
ফেলানী হত্যার রহস্য ২১ দিনেও উদ্ঘাটন করতে পারেনি পুলিশ

ওমর ফারুক

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি :

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার পৌর শহরের কাঁটাবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা ফেলানী বেগম (৩০) এর হত্যার রহস্য এখন ও উদ্ঘাটন করতে পারেনি ফুলবাড়ী থানার পুলিশ। হত্যার ঘটনাটি দিন দিন ধামাচাপা পড়ে যাচ্ছে। গত ১লা নভেম্বর ২০১৯ ইং শুক্রবার সন্ধ্যায় ফুলবাড়ী থানার পুলিশ খবর পেয়ে পৌর শহরের ফেলানী বেগমের গ্রাম থেকে দক্ষিণে প্রায় অধাকিলোমিটার দূরে ধান ক্ষেত থেকে লাশ উদ্ধার করে। ফুলবাড়ী উপজেলার পৌর এলাকার কাঁটাবাড়ী গ্রামের মোঃ আশিকুর রহমানের স্ত্রী মোছাঃ ফেলানী বেগম প্রতি দিনের ন্যায় ছাগলের ঘাস কাটা সহ ছাগল চরানোর জন্য এলাকার ধানক্ষেতে যান। ঐ দিন বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা হয়ে গেলেও তিনি আর বাড়ী ফিরে না আসায় বাড়ীর লোকজন ঐ এলাকায় খোজাখুজি শুরু করেন। এসময় নয়াপাড়া গ্রামের প্রতিবেসিরা ঐ এলাকায় গিয়ে ধান ক্ষেতের মধ্যে কাদামাখা অবস্থায় ফেলানী বেগমের মৃত দেহ দেখতে পেয়ে তার বাড়ীতে খবর দেন। পরে পরিবারের লোকজন ফেলানীর মৃত দেহ উদ্ধার করে ফুলবাড়ী স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যান। ফুলবাড়ী থানার পুলিশ তার মৃত দেহ উদ্ধার করে পরের দিন ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মর্গে পাঠান। ২১ দিন গত হলেও ফুলবাড়ী থানার পুলিশ এখন পর্যন্ত এই হত্যার সাথে কারা জড়িত তা এখন পর্যন্ত কিছুই বলতে পারছেনা। তবে এলাকাবাসীর মধ্যে সন্দেহ ও সংশয় দেখা দিলেও হত্যার রহস্যটি দিন দিন ধামাচাপা পড়ে যাচ্ছে। অনুরুপ ফুলবাড়ীতে ৪-৫টি হত্যার রহস্য এখনও উদঘাটন হয়নি। এ সব হত্যার রহস্য হয়তোবা আর উদ্ধার হওয়া সম্ভাব নয়। তেমনি ফেলানী বেগম হত্যার রহস্যটিও আর হয়তো উদঘাটন হবে না। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সাথে একটি মহলের সম্পৃক্ত থাকার কারণে এসব হত্যার বিচার সুষ্ট হবে না এবং হত্যার সাথে যারা জড়িত তাদেরকেও পুলিশ খুজে বের করতে পারবে না। এ ব্যাপারে ফুলবাড়ীর সচেতন মহল প্রত্যেকটি হত্যার রহস্য যাতে উদঘাটন হয় সে বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনের উদ্ধতর্ন কর্তৃপক্ষের আসুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Sharing is caring!