ফেনীর সোনাগাজী হাসপাতালে ফেলে যাওয়া নবজাতকের মা বাবার পরিচয় পাওয়া গেছে

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত অক্টোবর ২, ২০১৯
ফেনীর সোনাগাজী হাসপাতালে ফেলে যাওয়া নবজাতকের মা বাবার পরিচয় পাওয়া গেছে

নুরুল হুদা মিয়াজী রাসেল
ফেনী শহর প্রতিনিধি:

সোনাগাজী হাসপাতালে ফেলে যাওয়া নবজাতকের মা বাবার পরিচয় পাওয়া গেছে। ফেনীর স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “সহায়” সমন্বয়ক মঞ্জিলা আক্তার মিমি কয়েকদিন বিরামহীন চেষ্টা করে প্রথমে নবজাতকের মাকে খুঁজে বের করেন। পরে তার জবানিতে নবজাতকের বাবার পরিচয় পাওয়া যায়। জম্মের দুই দিন পর গত বুধবার লোকলজ্জার ভয়ে নবজাতকের মা তাকে কৌশলে সোনাগাজী হাসপাতালের দোতালায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। তাকে উদ্ধারের পর উপজেলা ও জেলা প্রশাসনের সহায়তায় নবজাতককে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির কাছে হস্তান্তর করা হয়। বর্তমানে শিশুটি সংগঠনটির তত্ত্বাবধায়নে ফেনী শহরের জেড ইউ মডেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে শিশুটির মা জানান, সোনাগাজী উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের দক্ষিণ সোনাপুর গ্রামের নুর নবীর ছেলে ট্রাকচালক শাহাদাত হোসেন বাবু ওই শিশুর জন্মদাতা। ওই এলাকায় শিশুটির মায়ের খালার বাড়ি। সেখানে বেড়াতে যাওয়ার সুবাদে শাহাদাতের সঙ্গে দুই বছর আগে পরিচয় ও প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।পরে মেলামেশার একপর্যায়ে তিনি গর্ভবতী হয়ে পড়েন। তাঁকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিলেও বিয়ে করেননি শাহাদাত। গত ২৩ সেপ্টেম্বর ওই নারী বাড়িতে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। পরে দুই দিনের নবজাতককে বুধবার রাতে স্বজনরাই সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দোতলার বারান্দায় ফেলে পালিয়ে যায়। ঘটনাটি জানাজানি হলে এলাকা থেকে সটকে পড়ে শাহাদাত।
সহায় এর সমন্বয়ক মঞ্জিলা মিমি বলেন, গত সোমবার হাসাতালে গিয়ে শিশুটির দায়িত্ব নেন তার মা। শিশুটির অবস্থা এখনো বেশ সংকাটাপন্ন।এখন বিষয়টি সামাজিকভাবে মীমাংসার চেষ্টা চলছে। পিতার স্বীকৃতি পেলেই শিশুটিকে পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

Sharing is caring!