ফেনীর দুই রত্ন নুরুল করীম আকরাম ও আতাউল্লাহ কবীর ভুঁইয়া

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
ফেনীর দুই রত্ন নুরুল করীম আকরাম ও আতাউল্লাহ কবীর ভুঁইয়া
মুহাম্মদ হাবীবুল্লাহ মোখতার:
বিপ্লবকামী ছাত্রদের প্রিয় সংগঠন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা (পরামর্শ পরিষদ) ও মজলিসে আমেলা (কার্যকরী পরিষদ) গঠিত হয়েছে গত ৮ ডিসেম্বর ‘১৯ইং৷
২০২০ সালের জন্য গঠিত এক বছর মেয়াদী এ দুই কমিটিতে সেক্রেটারী জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ফেনীর গর্ব মুহাম্মদ নুরুল করীম আকরাম আর মজলিসে শুরার সদস্য হিসেবে মনোনীত হয়েছেন আরেক রত্ন আতাউল্লাহ কবীর ভুঁইয়া৷ নুরুল করীম আকরাম৷ ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার বশিকপুর গ্রামে বেড়ে উঠা এ ছেলেটি তুখোড় মেধাবী৷ মেধার সঠিক ব্যবহার ও নিয়মিত পরিশ্রম তাকে সফলতার চুড়ান্ত পর্যায়ে নিয়ে গেছে৷ নিরলস মেহনত ও যোগ্যতা অর্জনের মাধ্যমে তিনি এখন বাংলাদেশের একটি বৃহৎ ত্রি-ধারার ছাত্র সংগঠন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল৷ তার পড়াশোনার ফিরস্তি দেখলেই বুঝা যায় তার মেধার প্রখরতা৷ তিনি ফেনীর ফুলগাজী পুর্ব বশিকপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণী, ফুলগাজী নুরপুর মহিউস্সুন্নাহ মাদরাসায় নুরানী-হেফজ ও কিতাব বিভাগে শরহে জামী, জামেয়া রাহমানিয়া ঢাকায় মেশকাত, ঢাকা জামিয়া কারীমিয়া রামপুরা থেকে দাওরা, ঢাকা মা’হাদুশ শায়খ আল ইসলামিয়াতে ইফতা শেষ করেন৷ বর্তমানে তিনি এশিয়ান ইউনিভার্সিটিতে অধ্যয়নরত৷ তৃনমুল থেকেই গড়ে উঠা এ সফল ছাত্রনেতার রাজনীতি শুরু হয় ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা দক্ষিণ শাখা থেকে৷ এখানে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি৷ পর্যায়ক্রমে ঢাকার মুহাম্মদ পুর থানায় সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন তিনি৷ কেন্দ্রীয় কমিটিতে সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক, ক্বওমী মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক, জয়েন্ট সেক্রেটারি ছিলেন৷ বর্তমানে সেক্রেটারি জেনারেল এর দায়িত্ব পালন করছেন৷
ফেনীর আরেক রত্ন আতাউল্লাহ কবীর ভুঁইয়া৷ বাড়ি ফেনী শহরে৷ ফেনীর শীর্ষ আলেমদের একজন, ফেনী জামেয়া’র সাবেক পরিচালক, ফেনী বড় মাসজিদের সাবেক খতীব মাওলানা কবীর আহমদ সাহেবের ছোট ছেলে আতাউল্লাহ কবীর পড়াশোনা ও রাজনীতি- দুটোতেই যোগ্যতার স্বাক্ষর রেখে চলেছেন৷ গত ৮ ডিসেম্বর গঠিত ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সর্বোচ্চ পরিষদ কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরার সদস্য নির্বাচিত হওয়ার মাধ্যমে তিনি তার মেধা ও যোগ্যতার মুল্যায়ন পেয়েছেন৷ আতাউল্লাহ কবীরের পড়াশুনাও বেশ লম্বা৷ ফেনী বড জামে মসজিদ নুরানী মাদরাসায় নুরানী, ফেনী জামেয়া ইসলামীয়া মাদরাসায় জামাতে শশুম/কাফিয়া, ফেনী দারুল উলুম আল হোসাইনীয়া ওলাবাজার মাদরাসায় দাওরা ও ইফতা সম্পন্ন করেছেন৷ পাশাপাশি তিনি ফেনী আলীয়া কামিল মাদরাসায় জেডিসি, দাখিল, আলিম অত্যন্ত কৃতিত্বের সাথে শেষ করেছেন৷ বর্তমানে ফাজিল ১ম বর্ষে অধ্যয়নরত৷ মেধাবী এ ছাত্রনেতার রাজনৈতিক জিবনের শুরু হয় ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সদস্য হওয়ার মাধ্যমে৷ নেতৃত্ব দেয়া শুরু করেন ফেনী জামেয়া ইসলামিয়া শাখায় দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে৷ পরবর্তিতে পর্যায়ক্রমে যুগ্ম সম্পাদক (ওলামাবাজার মাদরাসা শাখা), প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক (ফেনী সদর শাখা) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন৷ ২০১২ সালে প্রথম তিনি ফেনী জেলা শাখায় ছাত্র কল্যাণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান৷ তারপর অর্থ সম্পাদক, প্রশিক্ষন সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক, সাধারন সম্পাদক, সহ-সভাপতির পদে সফল নেতৃত্ব দেন৷ বর্তমানে ফেনী জেলা সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরার সদস্য হিসেবে আছেন৷ আদর্শিক, ত্রী-ধারার সমন্নিত ছাত্র রাজনীতির একমাত্র ভরসাস্থল, নতুন ও সঠিক ধারার আলোচিত বড় ছাত্র সংগঠন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সর্বোচ্চ পর্যায়ে মনোনীত হওয়া যেমন-তেমন ব্যাপার না৷ বহু কষ্ট সহ্য করে, কাঠ-খড় পুড়িয়ে, বহু আত্ব-ত্যাগের পর এ পর্যায়ে পৌছেন সংগ্রামী বিপ্লবী নেতারা৷ ফেনীর সর্বস্তরের ছাত্র-জনতার পক্ষ থেকে তাদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন৷ তাদের আগামীর পথচলা সোন্দর, সফল ও মসৃন হোক৷ বিপ্লবের পথে তাদের নেতৃত্ব চির স্মরনীয় হয়ে থাকুক, এই প্রত্যাশা সবার৷
লেখক:
মুহাম্মদ হাবীবুল্লাহ মোখতার
ইমাম, মাসজিদে খাদীজা (রাঃ) জেদ্দা, সৌদীআরব
বিশিষ্ঠ লেখক, সাংবাদিক ও সংগঠক

Sharing is caring!