ফেনীতে হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মার্চ ৩, ২০২০
ফেনীতে হেফাজতের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

ফেনী শহর প্রতিনিধি:

ভারতের দিল্লিতে মুসলিম হত্যা, নির্যাতনের প্রতিবাদে ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশে নরেদ্র মোদীর আগমণ প্রতিহত করতে ফেনীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে শহরের বড় জামে মসজিদ থেকে বের হয়ে শহরের দোয়েল চত্ত্বরে এসে মিলিত হয় হেফাজতে ইসলামের নেতা-কর্মীরা। সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের পর বিক্ষোভ মিছিল করে তারা। মিছিলটি শহরের ট্রাংক রোড়, মিজান রোড়, জেল রোড়, বড় মসজিদ প্রদক্ষিণ করে পুনরায় একই স্থানে এসে সমাবেশে মিলিত হয়।

হেফাজত নেতা মাওলানা ওমর ফারুকের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন দলটির ফেনী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মুফতী রহিমুল্লাহ কাসেমী, ফেনী জেলা শাথার সহ-সভাপতি মাওলানা সাইফুদ্দিন কাসেমী, মাওলানা শিব্বির আহম্মদ, সহ-সেক্রেটারী মুফতী ইলিয়িাস, জাফর আহম্মদ, উপদেষ্টা মাওলানা আবদুর রাজ্জাক,ফুলগাজী শাখার সভাপতি মাওলানা শফিউদ্দিন, ইসলামী আন্দোলন ফেনী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা একরামুল হক, হেফাজতে ইসলামের ফেনী জেলা শাখার সহ সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন ফারুক, সোনাগাজী শাখার সাধারণ সম্পাদক মুফতী নিজাম উদ্দিন প্রমূখ।

এসময় বক্তারা বলেন,এই জালিম মোদি সরকারকে মুজিববর্ষে বাংলাদেশে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। এ ব্যপারে আমাদের বক্তব্য সুস্পষ্ট,ভারতের মুসলমানদের রক্তে হাত রঞ্জিতকারী এই সন্ত্রাসী মোদিকে বাংলাদেশে আসতে দেওয়া যায় না। জালিম মোদিকে ৯০% মুসলিম অধ্যুষিত বাংলাদেশের জনগন রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে দেখতে চায় না। আশা করি এ ব্যাপারে সরকারের শুভবুদ্ধির উদয় হবে। জনতার ভাষা না বুঝলে,কঠিন কোন পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে এর দায়ভার সরকারকেই বহন করতে হবে।

এসময় তারা প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে বলেস, ‘মুসলমানদের হৃদ স্পন্দন বুঝতে চেষ্টা করুন প্রধানমন্ত্রী। যদি মোদি আসে তাহলে মুসলমানরা জেনে নিবে আপনি মুশরিকদের পক্ষে। কোন অবস্থাতেই যেন মোদি দেশে আসতে পারেনা। যদি আসে তাহলে তাকে জুতাপেটা করা হবে। সে বাংলাদেশে প্রবেশ করলে রক্তের বন্যা বয়ে যাবে।

 

Sharing is caring!