নোয়াখালীতে মন্দিরে হামলায় এক মানসিক রোগী আটক।

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
নোয়াখালীতে মন্দিরে হামলায় এক মানসিক রোগী আটক।

স্টাপ রিপোর্টার:

আজ (১৮সেপ্টেম্বর’১৯) রোজ বুধবার দুপুর ১২ টায় নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে বসুরহাট বাজারস্থ মন্দিরে মূর্তি ভাঙ্গার সময় বিল্লাল (২৪) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আটক বিল্লাল হোসেন উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের টেকের বাজার সংলগ্ন ৪নং ওয়ার্ডের মান হাজি বাড়ির আইউুব খানের ছেলে।

সিসি টিভি সূত্রে জানা যায় আজ দুপুর ১২টায় বসুরহাট বাজারস্থ মন্দিরে আগামীদিনের পূজার প্রস্তুতী চলাকালীন জমজমাট সময়ে প্রশাসনের উপস্থিতিতে মাথায় মাজার ভক্তদের টুপি ও লুঙ্গি পড়া অবস্থায় খুব সাভাবিক স্টাইলে সকলের সামনে দিয়ে মন্দিরে প্রবেশ করে হিন্দু সম্প্রদায়ের সুভদ্রা দেবীর বিগ্রহ ভেঙ্গে বেরিয়ে যাওয়ার সময় পূজায় অংশগ্রহণকারীদের সহযোগিতায় আটক হয় বিল্লাল হোসেন।

বিল্লাল ও তার মায়ের সাথে এবং তার প্রতিবেশিদের সাথে কথা বলে জানা যায় বিল্লাল মানসিক ভারসাম্যহীন রোগী, তার পিতা বর্তমানে অসুস্থ রোগী হলেও জীবনের অধিকাংশ সময় কাটিয়েছেন মাজারে মাজারে, তার মায়ের সাথে কথা বলে জানা যায় বিল্লাল মাজার অনুসারী হওয়ায় কট্টরপন্থী আচরণ করতো আগে থেকেই, তবে বর্তমানে তার চিকিৎসা চলছে এবং সে মানসিক রোগী।

ঘটনার বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আরিফুর রহমান জানান, বিশ্বকর্মা পূজা উপলক্ষ্যে সকাল থেকেই মন্দির প্রাঙ্গনে পুলিশ মোতায়েন ছিল। যার কারণে ঘটনার সাথে সাথেই হামলাকারীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। এখন হামলাকারির বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত সকল ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
এদিকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: ফয়সাল আহমেদ জানান অনাকাঙ্খিত এ ঘটনায় আমরা মর্মাহত। পাশাপাশি এ ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে এ বিষয়ে কোন ছাড় নেই।

Sharing is caring!