নরসিংদীতে সাংবাদিকের মুক্তির দাবীতে বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ সভা ও স্মারকলিপি প্রদান

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মে ৪, ২০২০
নরসিংদীতে সাংবাদিকের মুক্তির দাবীতে বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ সভা ও  স্মারকলিপি প্রদান

তানিম ইবনে তাহের:
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে নরসিংদীতে গ্রেফতারকৃত তিন সাংবাদিকের মুক্তির দাবীতে আজ রবিবার (৩ মে) নরসিংদী প্রেসক্লাবের সম্মুখে সাংবাদিকদের এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। নরসিংদী প্রেসক্লাবের সভাপতি মাখন দাসের সভাপতিত্বে জেলার ৬টি উপজেলার সকল সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন। প্রতিবাদ সভা সঞ্চালনা করেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো: মাজহারুল পারভেজ।

গ্রেফতারকৃত তিন সাংবাদিক যথাক্রমে রমজান আলী প্রামাণিক, শান্ত বণিক ও খন্দকার শাহিনের অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানিয়ে বক্তব্য রাখেন প্রবীন সাংবাদিক নরসিংদী প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও সাবেক সভাপতি নিবারণ রায়, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো: নূরুল ইসলাম, সাংবাদিক বেনজির আহমেদ বেনু, হামিদুল হক আহাদ, হলধর দাস, মনজিল এ মিল্লাত ও রায়পুরা, শিবপুর, পলাশ, মনোহরদী, বেলাব উপজেলা ও মাধবদী থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি, সম্পাদক ও আহবায়কগণ। পরে সাংবাদিকগন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে গ্রেফতারকৃত সাংবাদিকদের অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও তথ্য মন্ত্রীর বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করেন।

এসময় জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন গ্রেফতারকৃত সাংবাদিকদের মুক্তির ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ এবং স্মারকলিপিটি দ্রুত সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর আশ্বাস প্রদান করেন।

এদিকে, নরসিংদীর তিন সাংবাদিক গ্রেফতারের প্রতিবাদ জানালেন সুনামগঞ্জের সাংবাদিক শহীদনূর আহমেদ৷ লকডাউনে একাই প্রতিবাদ জানিয়েছেন এ সাংবাদিক।

আজ রবিবার (০৩ মে ) দুপুর ১২ টায় শহরের ট্রাফিক পয়েন্টে ফেস্টুনে লেখা “নরসিংদীর তিন সাংবাদিকের মুক্তি চাই” শিরোনামে প্রতিবাদ জানান দৈনিক খোলাকাগজ ও সিলেট ভিউ’র জেলা প্রতিনিধি শহীদ নূর আহমেদ।

প্রায় ঘন্টা সময় দাঁড়িয়ে জেলার সাংবাদিক সমাজের পক্ষ থেকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বাতিলের দাবি জানিয়ে ঐ সাংবাদিক বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সাংবাদিকদের সাংবাদিকতার পরিপন্থী। বস্তুনিষ্ট সংবাদ প্রচার করতে গিয়ে সাংবাদিকরা এই আইনের অপ প্রয়োগের শিকার হন। নরসিংদীর তিন সাংবাদিকরা ভোক্তভোগী পরিবারের দাবির প্রেক্ষিতে নিউজ প্রকাশ করে পুলিশের রোষানলে পড়েছেন।

Sharing is caring!