নরসিংদীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করেন রেলওয়ে কর্মচারী

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত অক্টোবর ২৮, ২০১৯
নরসিংদীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করেন রেলওয়ে কর্মচারী
তানিম ইবনে তাহের
নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি:
নরসিংদীর মনোহরদীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাদশ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে আবুল বাশার (২২) নামে রেলওয়ের এক কর্মচারী। গত শনিবার রাতে উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের খালিয়াবাইদ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষক আবুল বাশার একই গ্রামের আব্দুল খালেকের পুত্র। সে বাংলাদেশ রেলওয়ের কমলাপুর স্টেশনে কর্মরত। এ ঘটনায় কলেজছাত্রীর মা বাদী হয়ে মনোহরদী থানায় মামলা দায়ের করেছেন। জানা যায়, গত ১০ মাস আগে একই উপজেলার হাফিজপুর গ্রামে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় ওই ছাত্রীর। বিয়ের পর মোবাইল ফোনে আবুল বাশারের সাথে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরে আবুল বাশারের প্ররোচনায় আট মাসের মাথায় স্বামীর সংসার ত্যাগ করে পিত্রালয়ে চলে আসে। গত দুই মাস আগে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই নারীকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘোরাফেরা করে আবুল বাশার। একপর্যায়ে তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। একই কায়দায় আরো দুবার তাকে ধর্ষণ করা হয়। গত শনিবার রাতে ওই মেয়েটিকে আবারো তাকে ধর্ষণ করা হয়। বিষয়টি টের পেয়ে আশপাশের লোকজন ওই ধর্ষককে আটক করে। পরে তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে তার পরিবারের লোকজন এসে জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরদিন রবিবার রাতে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে ছয়জনের নামে মনোহরদী থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। মনোহরদী থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নরসিংদী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামি গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

Sharing is caring!