ধামরাইয়ে নদী থেকে কৃষকের মৃত দেহ উদ্ধার

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত জুলাই ৩, ২০২০
ধামরাইয়ে নদী থেকে কৃষকের মৃত দেহ উদ্ধার
  • জিহাদুল ইসলাম আনসারী
  • বিশেষ প্রতিনিধি ঢাকা জেলা

ঢাকার ধামরাইয়ে গাজিখালী নদীতে ঘাসের বোঝা নিয়ে সাঁতরে পারাপারের সময় বাদল চন্দ্র মনিদাস (৫৫) নামে এক কৃষক পানিতে ডুবে নিখোঁজের ১৭ ঘন্টা পর তার লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। সে উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের রামরাবন গ্রামের মৃত নিমাই চন্দ্র মনিদাসের ছেলে। শুক্রবার (৩জুলাই) দুপুরে দিকে ধামরাই উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের রামরাবন গ্রামে গাজিখালী নদী থেকে নিখোঁজ ওই কৃষকের লাশ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে গরুর জন্য কাটা ঘাসের বোঝা নিয়ে গাজিখালী নদী সাঁতরে পারাপারের সময় নিখোঁজ হন ওই কৃষক।
ধামরাই ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার হুমায়ন কবির জানান, গতকাল বিকেল প্রায় সাড়ে ৩টার দিকে ঘাসের বোঝা নিয়ে গাজিখালি নদীতে পারপারের সময় পানিতে ডুবে নিখোঁজ হন বাদল চন্দ্র মনিদাস।

খবর পেয়ে ধামরাই ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ও মানিকগঞ্জের আরিচা ঘাট ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দল উদ্ধারকাজ শুরু করে। তবে নদীতে প্রবল স্রোতের পাশাপাশি কচুরিপানার সংখ্যা বেশি থাকায় নিখোঁজ বাদল চন্দ্র দাসের সন্ধান পাওয়া যায়নি। সবশেষ আজ সকালে আবারো ডুবুরি দল উদ্ধারকাজ শুরু করলে প্রায় ৩০ ফুট নদীর গভীর থেকে তার নিথর দেহ উদ্ধার করা হয়। পরে মৃতদেহটি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কাওয়ালিপাড়া বাজার তদন্ত পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু সাঈদ জানান, নদীতে নিখোঁজ বাদল চন্দ্রের লাশ উদ্ধারের পর ফায়ার সার্ভিস তাদের কাছে হস্তান্তর করেছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহটি তার পরিবারের স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান তিনি।

Sharing is caring!