দেশে গণতন্ত্রের নামে স্বৈরতন্ত্র চলছে-গাজী আতাউর রহমান

আওয়ার বাংলাদেশ ডেস্ক ২৪
প্রকাশিত জানুয়ারি ১৬, ২০২১
দেশে গণতন্ত্রের নামে স্বৈরতন্ত্র চলছে-গাজী আতাউর রহমান

 

  • আলমগীর ইসলামাবাদী
    বিশেষ প্রতিনিধিঃ-

অদ্য ১৫ জানুয়ারী’২১ রােজ শুক্রবার বেলা ৩ টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের “বঙ্গবন্ধু হল”-এ ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম
মহানগরের সভাপতি রিদুয়ানুল হক শামসী’র সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ নাজিম উদ্দিন এর সঞ্চালনায় নগর সম্মেলন’২০২১” অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর যুগ্ম-মহাসচিব জননেতা মাওলানা গাজী আতাউর রহমান। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নূরুল করীম আকরাম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি, আসন্ন চসিক নির্বাচনের মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব মুহাম্মাদ জান্নাতুল ইসলাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাওলানা গাজী আতাউর রহমান বলেন, “এ-দেশে গণতন্ত্রের নামে স্বৈরতন্ত্র চলছে। ফলে সরকারি দল ছাড়া।
অন্য দলগুলাে তাদের রাজনৈতিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। জনগণ স্বাধীনতার ৫০ বছর পরেও তাদের ভােটাধিকার ফিরে পায়নি।
সরকার অন্যান্য দলগুলাের অগ্রগতিকে রুখে দিতে চায়। বাকস্বাধীনতার অধিকারকে তারা হরণ করেছে। স্বাধীনভাবে বাঁচতে হলে, বর্তামান স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটানাে অনিবার্য হয়ে পড়েছে। স্বাধিকার ফিরিয়ে আনতে চাই ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন। তাই এদেশের ছাত্র, যুবক, আবালবৃদ্ধবনিতা এক কাতারে নেমে এসে এই স্বৈর শাসনের অবসান ঘটাতে হবে।
আগামী চসিক নির্বাচনে যেন নৈশ্যভােটের পুনরাবৃত্তি না হয়। তাহলে সরকারকে এর চরম মূল্য দিতে হবে।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে ইশা ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নূরুল করীম আকরাম বলেন, “ইশা ছাত্র আন্দোলন একটি আদর্শিক
ছাত্র কাফেলা। তারা চায় এ-সমাজের অলিগলি থেকে শুরু কর রাষ্ট্র পর্যন্ত একটি আদর্শিক পরিবর্তন আনতে। সেই লক্ষ্য নিয়ে দেশের সর্বত্র তৃণমূল পর্যায়ে শিক্ষাঙ্গণ ও ক্যাম্পাসগুলােতে সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছে। আর এই দেশকে নতুন ভাবে গড়তে হলে ছাত্র সমাজকে আদর্শিক ভাবে গড়ে তুলতে হবে। কেননা তারাই এক-একজন আগামীর কর্ণধার , রাষ্ট্রনায়ক।

তিনি আরাে বলেন, দেশে ইসলামের বিরুদ্ধে একটি চক্র মরিয়া হয়ে উঠেছে। সিনেমা-নাটক-উপন্যাসে ইসলামকে বিকৃতরূপে উপস্থাপনের মাধ্যমে তরুণদের
ইসলামের বিপরীতে দাড় করাতে চেষ্টা চালাচ্ছে। শিক্ষা ব্যবস্থা থেকে ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষার পরীক্ষা বাতিলের মাধ্যমে নীতি- নৈতিকতা বিবর্জিত একটি ধর্মহীন জাতি গঠনের হীন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। এর ফলশ্রুতিতে দেশের তরুণদের চরিত্র ধ্বংসের দিকে ধাবিত করা হচ্ছে। সন্ত্রাস, মাদক ও ধর্ষণের মত ঘৃণ্য অপরাধগুলােও দিনদিন বেড়েই চলেছে। জাতির এ ক্রান্তিলগ্নে সত্য ও ন্যায়ের নকীবের ভূমিকা পালন করছে ইশা ছাত্র আন্দোলন।”

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব মুহাম্মাদ জান্নাতুল ইসলাম বলেন, “দেশে আজ দুর্নীতির মহােৎসব চলছে। ফলে,
দুর্নীতিবাজদের ভাগ্যের পরিবর্তন হয় কিন্তু এদেশের মানুষের অভাব-অনটন যায় না। এমনকি বহির্বিশ্বেও দুর্নীতির তালিকায় বাংলাদেশ বারংবার চ্যাম্পিয়ান হচ্ছে। হলমার্ক, শেয়ারবাজার লুট, ডেসটেনি, স্বাস্থ্যখাত, পরিবহন খাত, পদ্মাসেতু, করােনা টিকাসহ হাজারাে খাতে সরকারের আমলারা জনগনের টাকা লুটপাট করে খাচ্ছে। তাই সাধারণ জনগণ এই ক্ষমতাসীনদের আর বিশ্বাস করে না। এদের শিকড় উপড়ে ফেলা এখন সময়ের দাবী। নতুন করে আমাদের এই রাষ্ট্র নিয়ে ভাবতে হবে। আগামী চসিক নির্বাচন যদি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়, তাহলে অধিকাংশ ভােটার ইসলামের পক্ষে হাতপাখা প্রতীকেই তাদের রায় দিবে। যদি সন্ত্রাসীরা ভােটকেন্দ্র দখলের পাঁয়তারা করে, তবে আপনাদেরকে এর বিরুদ্ধে সীসাঢালা প্রাচীরের মতাে রুখে দাঁড়াতে হবে।”

এছাড়াও নগর সম্মেলনে আরাে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ওলামা মশায়েখ আইম্মা পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগরের নির্বাহী সভাপতি মাওলানা মনসুল হক জিহাদি, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি ওয়ায়েজ হােসেন ভূইয়া , ‘জাতীয় শিক্ষক ফোরাম চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি কারী দিদারুল মাওলা, ইসলামী যুব আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি তাজুল ইসলাম শাহীন প্রমুখ।

সম্মেলনে প্রধান বক্তা ইশা ছাত্র আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় সভাপতি নূরুল করীম আকরাম ২০২০ সেশনের চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি বিলুপ্ত করে ২০২১ সেশনে নতুন কমিটি ঘোষণা করেন।
সভাপতি- মুহাম্মাদ নাজিম উদ্দিন
সহ-সভাপতি- মুহাম্মাদ তানভীর হোসাইন
সাধারণ সম্পাদক- মুহাম্মাদ জিল্লুর রহমান

Sharing is caring!