দুবাইতে যেসব কাজে মোটা অংকের জরিমানা গুনতে হবে

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মার্চ ৩০, ২০২০
দুবাইতে যেসব কাজে মোটা অংকের জরিমানা গুনতে হবে

এইচ এম রিয়াজ (দুবাই প্রতিনিধি):
বিশ্ব করোনা ভাইরাস সঙ্কটে লকডাউন হয়ে আছে৷ কোনকিছুই স্বাভাবিক নেই৷ নিয়মিত সকল কাজ বন্ধ৷ বন্ধ মিল, কারখানা, মার্কেট, বাজার, রাস্তা-ঘাট, সামাজিক অনুষ্ঠান৷ মানুষ ঘরের বাইরে বেরোনো নিষেধ৷ কয়েকজন একত্রিত হওয়া বন্ধ৷

‘করোনা’ সংক্রমন হতে বাঁচতে সংযুক্ত আরব আমিরাত কিছু আইন ঘোষনা করেছে, যা অমান্য করলে আপনাকে গুনতে হবে মোটা অংকের জরিমানা৷ যেমনঃ

*দিনের বেলায় সন্তোষজনক কারণ ছাড়া ঘরের বাইরে গেলে ২০০০ দিরহাম (৪৬০০০ টাকা) জরিমানা হতে পারে।
*যারা ক্রনিক ডিজিজ, ঠাণ্ডা ও ফ্লু’তে ভুগছেন কিন্তু ইনডোরে মাস্ক পড়ছেন না কিংবা কর্তৃপক্ষ নির্দেশিত সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ব্যর্থ হচ্ছেন, তাদের ১০০০ দিরহাম (২৩০০০ টাকা)  জরিমানা হতে পারে।
*করোনা রোগীদের মধ্যে কেউ বাধ্যতামূলক চিকিৎসা সেবার জন্য হাসপাতালে থাকাবস্থায় যদি চিকিৎসকদের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী চিকিৎসা  গ্রহণে অস্বীকৃতি জানান, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আইনের সহযোগিতা নিতে পারবেন এবং এই অপরাধে তার ৫০ হাজার দিরহাম (১১,৫০,০০০ টাকা) অর্থদণ্ড হতে পারে।
*কেউ হোম কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশাবলী অমান্য করলে কিংবা প্রাইভেট কোয়ারেন্টাইন ফ্যাসিলিটিতে কর্তৃপক্ষের যাবতীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার কাজে সহযোগিতা দিতে ব্যর্থ হলে তাকে ৫০ হাজার দিরহাম বা এগারো লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা দিতে হতে পারে।
*পাবলিক ও প্রাইভেট পরিবহনে স্টেরিলাইজেশন কিংবা জীবানুমুক্তিতে ব্যর্থ হলে কোম্পানির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে পাঁচ হাজার দিরহাম বা এক লাখ পনেরো হাজার টাকা জরিমানা করা হবে।
*অকারনে স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানগুলোতে এ সময়ে যেয়ে ভিড় করলে ১০০০ দিরহাম বা তেইশ হাজার টাকা জরিমানা করা হতে পারে।
*কারো মেডিকেল টেস্ট করার আবশ্যকতা দেখা দিলে যদি তিনি তা করতে অস্বীকার করেন তাহলে তাকে পাঁচ হাজার দিরহাম জরিমানা করা হবে।
*কোন জরুরী কাজ কিংবা নিত্য প্রয়োজনীয় কেনাকাটা ছাড়া কেউ অকারনে রাস্তায় বের হলে তোকে ৩০০০ দিরহাম জরিমানা করা হবে।
*কেউ তার প্রতিষ্ঠান  সাময়িকভাবে বন্ধ রাখার কর্তৃপক্ষীয় নির্দেশ লংঘন করলে ৫০ হাজার দিরহাম জরিমানা হবে এবং প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করে দেয়া হতে পারে এবং এই প্রতিষ্ঠানে আসা গ্রাহককেও দিতে হবে ৫শ দিরহাম জরিমানা।
*শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সিনেমা, জিম, স্পোর্টস ক্লাব, মল, আউটডোর মার্কেট ,পার্ক , কফি শপ, শপিং সেন্টার, রেস্টুরেন্ট ইত্যাদি বন্ধ রাখার সরকারি নির্দেশনা লংঘন করলে ৫০ হাজার দিরহাম জরিমানা এবং প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হতে পারে আর এখানে আসা গ্রাহককেও ৫০০ দিরহাম জরিমানা করা হবে।
*কেউ কোন পাবলিক প্লেসে বা ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানে কোনরকম  সভা-সমাবেশ, জমায়েত আহবান করলে বা কোন সামাজিক অনুষ্ঠানাদি করলে আয়োজককে দশ  হাজার দিরহাম জরিমানা করা হবে এবং এতে অংশগ্রহণকারীদের প্রত্যেককে পাঁচ হাজার দিরহাম করে জরিমানা গুনতে হবে।
*কেউ কোন আক্রান্ত দেশ হতে আসার সময় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের  পর্যবেক্ষণ পরীক্ষা নীরিক্ষা লংঘনের চেষ্টা  করলে তাকে দুই হাজার দিরহাম জরিমানা করা হবে।
*কোন গাড়ির চালক তার গাড়িতে তিনজনের বেশি যাত্রী পরিবহন করলে এক হাজার দিরহাম জরিমানা দিতে হবে।এসব আদেশ লংঘনের পুনরাবৃত্তি ঘটলে লঙ্ঘনকারীর কাছ থেকে দ্বিগুণ পরিমাণ জরিমানা আদায় করা হবে।

Sharing is caring!