ছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল, কলেজশিক্ষক কারাগারে

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত অক্টোবর ২৩, ২০২১
ছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল, কলেজশিক্ষক কারাগারে

আওয়ার বাংলাদেশ ডেস্ক: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে প্রিন্সিপাল কাজী ফারুকী স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক ছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ভাইরালের ঘটনায় তোলপাড় চলছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবার দায়ের করা মামলায় কলেজশিক্ষক মো. রুবেলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (২২অক্টোবর) পৌরসভার নতুনবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত শিক্ষক প্রিন্সিপাল কাজী ফারুকী স্কুল অ্যান্ড কলেজের আইসিটি শিক্ষক। কলেজছাত্রী ওই প্রতিষ্ঠানের ২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থী ও  শিক্ষকের সাবেক স্ত্রী।

প্রিন্সিপাল কাজী ফারুকী স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আমিন বলেন, শিক্ষক রুবেলের বাড়ি ফরিদপুরের গোপালগঞ্জ শহরে। তিন বছর আগে তিনি আইসিটির শিক্ষক হিসেবে কলেজে যোগদান করেন। করোনাকালীন ছাত্রীকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়েটি ছাত্রীর মা মেনে নিলেও দূরের যাতায়াতের কারণে তার প্রবাসী বাবা মেনে নেয়নি। এতেই বিপত্তি ঘটে।

গত কয়েক দিন ধরে ছাত্রীর বাবা ও শিক্ষকের মধ্যে ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছিল। এর মধ্যে মেয়েকে দিয়ে কলেজশিক্ষক জামাই রুবেলকে তালাকনামা পাঠান তিনি। ছাত্রীর বাবা বাসায় মেয়েকে বন্দি করে রাখেন।

এতে ক্ষুব্ধ হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে কলেজশিক্ষক রুবেল তার সাবেক স্ত্রীর (কলেজছাত্রী) সঙ্গে কাটানো একান্ত মুহূর্তের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শুক্রবার সকালে রায়পুর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন।

এরপর পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষক রুবেলকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায় ও তার ফেসবুক থেকে পোস্ট করা ভিডিও সরিয়ে ফেলে।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, আজ সকালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার দেখিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। দুপুরে জবানবন্দি শেষে রায়পুর আদালতের বিচারক ওই ছাত্রীকে তার বাবার হেফাজতে দিয়েছেন।

নাউখাঁ/আবা২৪

Sharing is caring!