চিকিৎসা না পেয়ে ছেলের মৃত্যুর খবর শুনে চলে গেলেন বাবাও, দেশে মৌলিক অধিকার কবে নিশ্চিত হবে?

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মে ১২, ২০২০
চিকিৎসা না পেয়ে ছেলের মৃত্যুর খবর শুনে চলে গেলেন বাবাও, দেশে মৌলিক অধিকার কবে নিশ্চিত হবে?

ফজলে রাব্বি (নারায়নগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি) : করোনা উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরেও চিকিৎসা না পেয়ে মারা যায় হতভাগ্য রিমন(২৪)।

জ্বর, সর্দি থাকায় চিকিৎসা নিতে গেলেও কোন হাসপাতাল তাকে গ্রহন করেনি৷ সর্বশেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

এ ঘটনা শোনার পর তার পিতা হাজী ইয়ার হোসেন(৬০) হার্ট এটাক করে মৃত্যুবরন করেন।

গত ১১ মে সোমবার নারায়নগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে৷ মৃতের পরিবার ও এলাকাবাসীর মধ্যে চলছে শোকের মাতম ও ক্ষোভ৷

মৃত রিমনের চাচাতো ভাই মাসুম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ১১ মে সোমবার রাত তিনটার দিকে অসুস্থ বোধ করলে তাকে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাই৷ করোনা উপসর্গের কারনে কোনো হাসপাতালই আমার ভাইকে চিকিৎসা করতে রাজি হয়নি । পরিশেষে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যাই । সেখানেই সকাল ৬ টার দিকে রিমন শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করে৷

এদিকে ছেলের আকস্মিক মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে হৃদরোগে আক্রান্ত হয় মারা গেছেন বাবা হাজি ইয়ার হোসেন৷ তাকেও নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে । সকাল ৭টার দিকে তিনিও মৃত্যুবরন করেন৷

মৃত রিমনের করোনা উপসর্গ থাকায় তার নমুনা পরিক্ষা করার জন্য নেয়া হয়েছে তবে এখনো ফলাফল জানা যায়নি৷

এলাকাবাসীর দাবী, রিমন ও তার বাবার মৃত্যুর জন্য হাসপাতালগুলো দায়ী৷ এভাবে বিনা চিকিৎসায় মারা যাওয়া একটি রাষ্ট্রে মৌলিক অধিকার সংরক্ষিত না থাকার প্রমান৷ আমরা এর দ্রুত সমাধান ও বিচার চাই৷

Sharing is caring!