চাঁদপুরে দেবরের হাতে ভাবির মৃত্যু

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত নভেম্বর ২৬, ২০১৯
চাঁদপুরে দেবরের হাতে ভাবির মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্ট

চাঁদপুরের মতলব উত্তরে দেবরের লাঠির আঘাতে নিহত হয়েছেন বড় ভাইয়ের স্ত্রী রহিমা বেগম (৫০)। সোমবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার সিপাইকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রহিমা বেগমের স্বামী বিল্লাল সরকার একজন বাক প্রতিবন্ধী ব্যক্তি। ঘটনার পর থেকে দেবর নেয়ামত সরকার ও তার পরিবারের সদস্যরা গা ঢাকা দিয়েছেন।

পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, সোমবার বিকেলে পারিবারিক কলহের জের ধরে রহিমা বেগমের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় দেবরের স্ত্রী ফিরোজা বেগম (৪৫) এবং ছেলে শাহাদাত সরকার (২৫) সঙ্গে। এ সময় বাড়ির উঠানে ঘটনাস্থলে এসে ভাবী রহিমা বেগমের মাথায় সজোরে আঘাত করেন দেবর নেয়ামত সরকার। এতে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন রহিমা বেগম। ঘটনার পরপরই স্বজন ও এলাকাবাসী তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রহিমা বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের ছেলে নাসির সরকার জানান, তার বাবা একজন বাক প্রতিবন্ধী ব্যক্তি। তাই বিভিন্ন সময় চাচার পরিবারের সঙ্গে নানা বিষয় নিয়ে ঝগড়াঝাটি হয়। এরই জের ধরে সোমবার বিকেলে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় তার মাকে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা করে।
মতলব উত্তর থানার ওসি নাসিরউদ্দিন মৃধ্যা জানান, এই ঘটনায় নিহতের ছেলে বাদী হয়ে মামলা করেছেন। অভিযুক্ত এবং ঘটনায় জড়িত অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
অন্যদিকে, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন

Sharing is caring!