চট্টগ্রামে ঈদ পালনে সিএমপির সর্তকতা

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মে ২২, ২০২০
চট্টগ্রামে ঈদ পালনে সিএমপির সর্তকতা
  • আলমগীর ইসলামাবাদী
  • চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধি
চট্টগ্রামে গাণিতিক হারে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, ঈদ পালনে সিএমপির সর্তকতা পবিত্র ঈদুল ফিতরে করোনা সংক্রমণ এড়াতে কোলাকুলি, করমর্দন, জনসমাগম পরিহার করতে জনসাধারণকে নির্দেশ দিয়েছে সিএমপি।
ইতিমধ্যে ঈদে নগরীর বিনোদন স্পটগুলোতে জনসাধারণের প্রবেশে নিষেধ করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (২১ মে) সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার ও জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, রাজধানী ঢাকার পর চট্টগ্রাম নগরী এখন করোনা ভাইরাসের হটস্পটে পরিনত হয়েছে। প্রতিদিন গাণিতিক হারে বাড়ছে চট্টগ্রামে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা।
গত ২০ এপ্রিল নগরীতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল যেখানে ২৫ জন এক মাসের ব্যবধানে গতকাল বুধবার (২০ মে) সংখ্যাটি দাঁড়ালো ৯১২ জনে। আর পুরো চট্টগ্রাম জেলায় গতকাল বুধবার ( ২০ মে ) পযর্ন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১২৩০ জনে, মারা গেছেন ৪৫ জন।
বৃহস্পতিবার (২১ মে) এই সংখ্যাটি হাজার অতিক্রম করবে। আমরা ভয়ানক পরিনতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছি যার প্রমাণ নগরবাসীকে করোনাভাইরাস আক্রান্তের গ্রাফটি। সিএমপির পক্ষ থেকে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে শত চেষ্টার পরেও থামানো যাচ্ছে না করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের গতি। আক্রান্তের হার যেমন বাড়ছে, সেইসাথে মৃত্যুর হারও বাড়ছে।
সচেতনতা এবং জীবনের প্রতি ভালোবাসাই একমাত্র পথ যার মাধ্যমে করোনা ভাইরাসের এই গতিকে টেনে ধরা সম্ভব। জাতীয় জীবনে অনেক ঈদ, উৎসব, আনন্দ পার করেছি এবং উপভোগ করেছি। ভবিষ্যতে ও ইনশাল্লাহ করবো। কিন্তু করোনা মহামারী কালে আমাদের কাছে এবার সম্পূর্ণ ভিন্নভাবে এসেছে ঈদুল ফিতর।
নিজের স্বার্থে, নিজের আপন জনদের স্বার্থে এবং রাষ্ট্রের বৃহৎ স্বার্থে এই ঈদে আমরা যেন কোনোভাবেই সামাজিক দূরত্ব লংঘন না করি, আমরা যেন কোনোভাবেই নিজেরা নিজেদের বিপদ ডেকে না আনি। চট্টগ্রাম মেট্রপলিটন পুলিশের ৭ হাজার পুলিশ সদস্য সর্বক্ষণ নগরবাসীর পাশে আছে।

Sharing is caring!