খুলনায় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাসা বাড়িতে হামলা, আহত-৬

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯
খুলনায় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাসা বাড়িতে হামলা, আহত-৬

মোসাদ্দেক বিল্লাহ (সাব্বির)
খুলনা জেলা প্রতিনিধি:

খুলনা জেলার অন্তর্গত পাইকগাছায় দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে বাসা বাড়ী ভাংচুর, আগুন, দেওয়া পূর্বক একজনকে জিম্মি করে রাখা হলে পুলিশ উদ্ধার করেছে। হামলায় ৫ মহিলাসহ ৬জন আহত হয়েছে। আহতদের পাইকগাছা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

জানা যায়, উপজেলার সোলাদানা আদর্শগ্রামের হামিদ খান তার পরিবারের লোকজন নিয়ে বাড়ী সংলগ্ন লীজ ঘেরে বসবাস করে। দুর্বৃত্তরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সোমবার গভীর রাতে উপজেলার বয়ারঝাপা গ্রামের মোজাম, নিজাম, রাশেদ, রশিদ, বিল্লাল, জাহাঙ্গীর, মাসুম, আলম, বায়জীদ, সুজন, শহিদুল, হাদী, অলি, নান্টু, আকবার, রহিম, রোকন, দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে হামিদের লীজ ঘেরে হামলা চালায়। দুর্বৃত্তরা হামিদের ঘর-বাড়ী ভাংচুর পূর্বক আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় হামিদকে জনৈক হানিফার দোকানে আটকে রাখে। দুর্বৃত্তের হামলায় ফাতেমা বেগম (৬০), সোনাবান (৪৫), জরিনা (৫০), ফিরোজা (৫০), হামিদ খা (৫৫) ও কিশোরী শিক্ষার্থী মাসুরা (১২) আহত হয়।

থানা পুলিশের এস,আই নকিবুল ইসলাম সংবাদ পেয়ে ফোর্স নিয়ে হামিদ খানকে উদ্ধার করে। আহতদের পুলিশের সহযোগিতায় স্থানীয় লোকজন পাইকগাছা হাসপাতালে ভর্তি করে। দুর্বৃত্তরা হামিদ খানকে ইতোপূর্বে বিভিন্ন হুমকি-ধামকির প্রেক্ষিতে তার স্ত্রী ফিরোজা বেগম পাইকগাছা থানায় সাধারণ ডায়েরী করে। যার নং- ৯৫৩, তাং- ১৫/০৯/২০১৯ইং। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

সোলাদানা ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান বি.এম আরেফিন মঙ্গলবার সকালে আহতদের পাইকগাছা হাসপাতালে দেখতে যান এবং আহতদের দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেন।

Sharing is caring!