ক্যাসিনোর টাকা মানুষের কল্যাণে ব্যবহার করা হোক, প্রধানমন্ত্রীর কাছে সুমনের আবেদন

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯
ক্যাসিনোর টাকা মানুষের কল্যাণে ব্যবহার করা হোক, প্রধানমন্ত্রীর কাছে সুমনের আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্ন ক্লাবে অভিযান চালিয়ে ক্যাসিনোর কোটি-কোটি টাকা জব্দ করেছে র‍্যাব। জব্দ করা এসব টাকা নিয়ে ভিন্নধর্মী একটি প্রস্তাব দিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের জনপ্রিয় মুখ ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।
তার প্রস্তাব, এসব টাকা গ্রাম-গঞ্জের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের করা হোক।

গত রোববার হবিগঞ্জের ৫ নম্বর শানখোলা ইউনিয়নের বাজেশতং গ্রামে একটি কাঠের ব্রিজ উদ্বোধনকালে ফেসবুক লাইভে তিনি এ প্রস্তাব জানান। ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ক্যাসিনোর জুয়ার ঘরে ১২ কোটি টাকা পাওয়া গেছে। কেউ বলে দেড়শ’ কোটি? কেউ বলে ২০০ কোটি টাকার এফডিআর পাওয়া গেছে। জুয়ার ঘরে এত টাকা পাওয়া যায়, কিন্তু যে জায়গাগুলোতে মানুষ কষ্ট পাচ্ছে সে জায়গাগুলোর কেউ খবর রাখে না। এটা ভিতরের একটা গ্রাম। এমন জায়গা সাধারণত নেতাদের চোখ পড়ে না। নেতারা এসব জায়গায় আসেন না।
সুমন বলেন, আমার নিজ এলাকা হবিগঞ্জের ৫ নম্বর শানখোলা ইউনিয়নের বাজেশতং গ্রাম। গ্রামের মানুষের আবেদন অনুযায়ী এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণ করেছি। এ ব্রিজটি উদ্বোধন করতে এসেছি। এই ব্রিজটা বানানোর মধ্য দিয়ে একটি কথা বলতে চাই। ক্যাসিনোর টাকা, যেগুলো অবৈধভাবে উপার্জনের টাকা, এ টাকাগুলো কী সরকারের মাধ্যমে গ্রামে-গঞ্জে নিয়ে আসা যায় কি-না।
এসময় তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেন, অবৈধভাবে আয় করা এই টাকাগুলো গ্রামে নিয়ে আসা যায় কি-না।
ব্যারিস্টার সুমন বলেন, আমি আমার ব্যক্তিগত জীবনে যদি ২৬টি কাঠের ব্রিজ করতে পারি, আমি চাই যে এভাবে যারা সফল আছেন, তারা নিজেদের জন্মস্থানে গিয়ে খোঁজার চেষ্টা করেন। এ রকম বহু মানুষের কষ্ট হয়তো ১ লাখ টাকা দিয়ে একটা ব্রিজ বানিয়ে দিয়ে কমানো যাবে।

উল্লেখ্য, রাজধানী ঢাকার ৬০টি স্পটে অবৈধ ক্যাসিনো (জুয়ার আসর) ব্যবসা চলছিল বলে তথ্য আসে। কেন্দ্রীয় ও মহানগর উত্তর-দক্ষিণ যুবলীগের একশ্রেণির নেতা এ ব্যবসায় জড়িত বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। এরপরই অভিযানে নামে র‍্যাব। এ অভিযান এখনও চলমান রয়েছে।

Sharing is caring!