কৈফিয়ত : প্রবাসীরা কেনো উপেক্ষিত

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত এপ্রিল ৮, ২০২০
কৈফিয়ত : প্রবাসীরা কেনো উপেক্ষিত

মুহাম্মদ গোলাম সরোয়ার সিরাজী 

বিশ্বের নাজুক পরিস্থিতি । তৃতীয় বিশ্বের দেশ বাংলাদেশের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক । উন্নয়নশীল রাষ্ট্র হিসাবে বাংলাদেশ পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে কালের কাল লেগে যাবে । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অর্থনীতির বিরূপ প্রভাব কাটিয়ে উঠতে প্রায় ৭৩ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সবার কথা মনে রেখে প্যাকেজেজ ঘোষণা করলেও প্রবাসীদের কথা একদম ভুলে গেলেন । প্যাকেজে প্রবাসীদের জন্য যৎকিঞ্চিত কিছুও রাখলেননা । পুজিপতিদের কথা – স্বার্থ দেখলেন, দেখলেন ক্ষুদ্র ও মাঝারী ব্যবসায়ীদের স্বার্থ । প্রবাসীরা কেনো উপেক্ষিত হলো । পরিবার ফেলে যারা বিশ্ব কারাগারে বসবাস করছে, তাদের কথা মনে রাখার কোন অভিভাবক নেই , একথা আবারো সত্য প্রমাণিত হলো । সামান্য সুদে রপ্তানি শিল্প শ্রমিকদের জব্য পাঁচ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখলেন । আরো পাঁচ দশ হাজার কোটি টাকা তো প্রবাসীদের জন্য রাখতে পারতো । অসচ্ছল প্রবাসীরা অন্তত পরিবার চালাতে পারতো । এতো বড় প্রনোদনা প্যাকেজে প্রবাসী নাই, এটাও একটা ইতিহাস হয়ে থাকবে । প্রবাসীদের প্রতি সরকার প্রধানের এমন অবহেলা খুবি দুঃখ জনক ।

বিশ্ব আগের মত থাকবেনা । অনেক পরিবর্তন হবে । এ মহামারিতে যারা আল্লাহর ইচ্ছায় জীবিত থাকবে, তারা নতুন বিশ্বের বাসিন্দা হবে । বেঁচে থাকা মানুষদের দুই বিশ্বের অভিজ্ঞতা থাকবে । এক সময় বৃটেন দুনিয়া চালাতো । বর্তমান বিশ্বে বৃটেন অনেকটা অপ্রাসঙ্গিক । ইউরোপীয় ইউনিয়নের মত একটা আঞ্চলিক জোটেও বৃটেন অচল । বিশ্বচালকের আসনে আমেরিকা নাই । তারা এখন লাশবাহি গাড়ী চালাতে ব্যস্ত । আমেরিকার লাশের গাড়ী চলতে চলতে বিশ্ব মানচিত্র ঘুরে যাবে ।

নিজের কথায় আসি । আমি কুয়েতে আছি । কুয়েতের দুটি এলাকা ২৪ ঘন্টার লকডাউনে । আমি সেরকম একটি এলাকায় । লকডাউনের আগে আত্মীয় – বন্ধু অনেকে এ এলাকা ছেড়ে তাদের সাথে যেতে বলেছেন । যাইনি । এখন অজানা আতংকে দিনাতিপাত করছি । কি অবস্থায় আছি, দেশের বন্ধুদের বুঝাতে পারছিনা ।

দেশে থাকলে বন্ধুদের সাথে থাকতাম । সকল কাজে সাথী হতাম । ইসলামী আন্দোলন ফেনী জেলা সর্বক্ষেত্রে ভালো কাজ করছে । অন্য জেলা ফেনী থেকে শিখতে পারবে । মাওলানা নুরুল করীম ও আলহাজ একরাম ভুঁইয়ার নেতৃত্বে একঝাঁক তরুণ নেতৃত্ব ফেনীবাসীর মন জয় করতে পেরেছে আলহামদুলিল্লাহ । করোনা বিষয়ক সচেতনতা প্রোগ্রাম, লাগাতার ত্রাণ বিতরণ, পরিস্থিতির স্বীকার উলামায়ে কেরামের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সবকটি আয়োজন ফেনীবাসীকে উজ্জ্বল করছে । সীমিত প্রস্তুতি নিয়ে যে মাঠে ঝাপিয়ে পড়া যায়, তার নমুনা দেখালেন আমাদের নেতারা । আমি তাদের সাথে নেই, ভাবতে খারাপ লাগে । সবার কাছে দোয়া চাই । আল্লাহ চাহেতো দেখা হবে । আপনাদের আবদার পুরণের কোনো সুযোগ এ মুহুর্তে নাই বলে ক্ষমা প্রার্থনা করছি । আশা করি ক্ষমা করবেন ।

লেখক: মুহাম্মদ গোলাম সরোয়ার সিরাজী

কুয়েত প্রবাসী

Sharing is caring!