কুড়িগ্রামে নদী ভাঙ্গনে দিশেহারা শতাধিক পরিবার

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত জুন ২৫, ২০২০
কুড়িগ্রামে নদী ভাঙ্গনে দিশেহারা শতাধিক পরিবার
  • তোফায়েল আহমেদ
  • কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

গত কয়েক দিনের টানা বর্ষন ও উজানের ঢলে কুড়িগ্রামের নদ-নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় নদী ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারণ করেছে । এ অবস্থায় নদী ভাঙ্গনের স্বীকার পরিবারগুলো দিশেহারা হয়ে পড়েছে । ভাঙ্গন রোধে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন ভূক্তভূগিরা ।

বর্ষার শুরুতেই কুড়িগ্রামের ব্রহ্মপুত্র, ধরলা, তিস্তাসহ অন্তত ১৫ টি পয়েন্টে নদী ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে । কুড়িগ্রামের রাজারহাটের ছিনাই ইউনিয়নের জয়কোমর, কামাড়পাড়া, কালুয়া এবং বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের রামহরি, চৈত্রা গ্রামের প্রায় দুই শতাধিক বাড়ি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে । হুমকিতে রয়েছে হাজার হাজার বাড়িঘর ও আবাদি জমি । তিস্তা নদীর চরে আবাদি জমি সব নদীর অতল গর্ভে তলিয়ে গেছে।

 

ভূক্তভূগিরা জানায়, তাদের আবাদি জমি, ফসল, বাদাম, পাট, ভূট্টা সব নদীতে ঢুবে গেছে । তারা আরো জানায়, যে আকারে নদী ভাঙ্গন শুরু হয়েছে তাতে ছেলে-মেয়েদের নিয়ে রাত্রীযাপন করাটাই হুমকির মুখে পড়েছে। ভাঙ্গনের স্বীকার এইসব মানুষ ভিটেমাটি হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে মানবেত জীবনযাপন করছে ।

এখন পর্যন্ত তারা সরকারী, বেসরকারী কোনো ধরণের সহযোগিতা পায় নি । ভাঙ্গন রোধে এ কার্যকর ব্যবস্থা না নিলে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাবে আরো হাজার হাজার পরিবারের শেষ সম্বলটুকু । এ পরিস্থিতিতে ভাঙ্গন রোধে কাজ করতে চেয়েছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম ।

Sharing is caring!