কর্মীদের বন্যাদুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানালেন চরমোনাই পীর

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত জুলাই ২০, ২০২০
কর্মীদের বন্যাদুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানালেন চরমোনাই পীর
  • আওয়ার বাংলাদেশ ডেস্ক

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বন্যায় দুর্গত মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসার জন্য দেশের সর্বস্তরের জনতার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

আজ সোমবার এক বিবৃতিতে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, বন্যাকবলিত উত্তরবঙ্গকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করে সেখানে জরুরি ভিত্তিতে উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা চালাতে। এ সময় তিনি উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতায় প্রয়োজনীয় সেনা ও বিমান বাহিনীকে নিয়োগ করার দাবি জানান।

চরমোনাই পীর বলেন, রাজনৈতিক ঝগড়া-বিবাদ পরিহার করে সরকার ও বিরোধী দল সবাইকে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাড়াতে হবে এবং বন্যা পরিস্থিতি থেকে বাঁচার জন্য আল্লাহর কাছে ইস্তেগফার ও তওবা করতে হবে।

তিনি বলেন, বন্যা কবলিত আশরাফুল মাখলুক বনি আদম বাঁচার জন্য রাব্বুল আলামিনের দরবারে ফরিয়াদ করছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের অভাবে মানবেতর জীবন যাপন করছে। বানভাসী মানুষ বাঁচার জন্য আশ্রয় খুঁজছে। বানভাসী মানুষ একটু আশ্রয় ও খাবারের জন্য আর্তনাদ করছে।

তিনি বন্যাদূর্গতদের পাশে সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবান, সেবা সংস্থা ও সংগঠনের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদেরকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

পীর সাহেব বলেন, দেশে ইনসাফপূর্ণ সমাজ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত না থাকায় মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণ হচ্ছে না। মানুষ অনাহারে, অর্ধাহারে অসহায় জীবন যাপন করছে। তিনি বলেন, ইসলাম মানুষের কল্যাণের জন্য নিবেদিত। কল্যাণকামীতাই ইসলামের বৈশিষ্ট্য। তিনি বলেন, মৌলিক অধিকার ফিরে পেতে সকলকে ইসলামের সুমহান আদর্শে ফিরে আসতে হবে।

Sharing is caring!