করোনা: ফোন করলেই মৃতের বাসায় পৌছে যাচ্ছেন একদল আলেম

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত এপ্রিল ১১, ২০২০
করোনা: ফোন করলেই মৃতের বাসায় পৌছে যাচ্ছেন একদল আলেম
  • মাহমুদুল হাসান ত্বহা
  • ঢাকা মহানগর প্রতিনিধি

বিশ্বব্যাপী মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। ভাইরাসটির সংক্রমণ থেকে নিরাপদ থাকতে কার্যত লকডাউনে রয়েছে গোটা বিশ্ব। এ পর্যন্ত বাংলাদেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৪২৪ জন। তার মধ্যে ইন্তেকাল করেছেন ২৭ জন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, করোনায় মৃতের শরীর থেকে ভাইরাসটি ছড়ায় না৷ তবুও আতঙ্ক কাটছেনা সাধারণ মানুষের। এ আতঙ্ক থেকেই দেশে করোনায় মৃত কয়েকটি জানাজায় অংশ গ্রহণ করেনি স্বজনরা।

এমন পরিস্থিতিতে শরীয়াহ মোতাবেক জানাজা ও দাফন সম্পন্ন করতে সারাদেশে এগিয়ে এসেছেন আলেমগণ৷

ঢাকায় সমাজ সেবক মাওলানা গাজী ইয়াকুবের নেতৃত্বে এক ঝাঁক আলেমের টিম গঠিত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে রাজধানী ঢাকায় এ কাজটি করার উদ্যোগ নিয়েছেন তারা। আলেমদের এ কাফেলায় রয়েছেন এইচ এম লুৎফর রহমান, হিফজুর রহমান, সালমান বিন সাজিদ, নুরুননাবী নুর, কারী ওসামা বিন নিজাম ও মুহাম্মাদ রাফী।

এছাড়া রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার আরো ৬০/৭০ জন আলেম এ কাজে অংশ নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

করোনা আক্রান্ত কোন রোগী মারা গেলে তাদের জানাজা-দাফনের প্রয়োজন হলে আলেমদের পক্ষ থেকে একটি মোবাইল নাম্বার ০১৯২০৭৮১৭৯২ দেওয়া হয়েছে। এ নাম্বারে যোগাযোগ করলে তারা সেখানে পৌছে যাবেন এবং জানাজা-দাফনসহ যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করবেন।

এ বিষয়ে মাওলানা গাজী ইয়াকুব বলেন, বিভিন্ন দেশে আমরা করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের জানাজা-দাফন নিয়ে সঙ্কটের কথা শুনেছি। এজন্য আমরা চাচ্ছি আমাদের দেশে যেন সে রকম পরিস্থিতি না ঘটে। ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক যেন একজন মুসলমানের জানাজা-দাফন হয়, সেজন্য আমরা এ উদ্যোগ নিয়েছি।

তিনি বলেন, আমরা ব্যক্তিগতভাবে এ উদ্যোগ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেওয়ার পর রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে ৬০/৭০ আলেম আমাকে ফোন করে এ কাজে থাকার আগ্রহ দেখিয়েছেন। তারা বলছেন যেন প্রতিটি থানাভিত্তিক তাদের দাযিত্ব দেওয়া হয়। আমরাও বিষয়টি বিবেচনা করছি।

এছাড়াও ঢাকাসহ সারাদেশে নিজস্ব টিম গঠন করেছে ‘ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন’৷ মুফতী হাবীবুর রহমান মিসবাহ পরিচালিত এ সংস্থাটির প্রায় অর্ধশত আলেম করোনা আক্রান্ত মৃতদের দাফন-কাফনের জন্য সারাদেশে প্রস্তুত রয়েছেন বলে জানা যায়৷

পীর সাহেব চরমোনাই নেতৃত্বাধীন রাজনৈতিক সংগঠন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশও প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে টিম গঠনের ঘোষনা দিয়েছে৷ ইতিমধ্যে কয়েক জেলায় তারা প্রশাসনের আহবানে করোনায় মৃত ব্যক্তির দাফন কাফনের কাজ করেছেন বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে৷

এছাড়াও কুমিল্লার দাউদকান্দিতে তিনজন আলেম স্বেচ্ছায় করোনায় মৃত ব্যক্তির জানাজা ও দাফন সম্পন্ন করেছেন এমন সময়ে, যখন মৃতের পরিবার বা আত্বীয়রা কাছে ভিড়ছিলোনা৷

শুনা যাচ্ছে, সারাদেশের প্রত্যেক গ্রাম, মহল্লায় ক্বওমী আলেমগণ প্রস্তুত রয়েছেন এ কাজের জন্য৷ তাই বাংলাদেশে কাফন-দাফনে সঙ্কট হবেনা বলে মনে করেন বিজ্ঞজনেরা৷

Sharing is caring!