করোনা : থানকুনি পাতার গুজবে রাতভর নির্ঘুম দেশবাসী!

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মার্চ ১৮, ২০২০
করোনা : থানকুনি পাতার গুজবে রাতভর নির্ঘুম দেশবাসী!

আওয়ার ডেস্ক:

রাতভর গুজবে ঘুম হারাম হয়েছে সারাদেশে করোনাভাইরাসে আতঙ্কিত লোকজনের। বাংলাদেশের সু-প্রসিদ্ধ চরমোনাই পীর সাহেব স্বপ্নে দেখেছেন ‘ফজরের আগে অজু করে তিনটা থানকুনি পাতা খেলে করোনাভাইরাসে ধরবে না’ মধ্যরাতে সারাদেশে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ে। কোথাও বলা হয়েছে জৈনপুরী পীর এমন স্বপ্ন দেখেছেন। দেশের বিভিন্ন জায়গায় মাইকিং করে তা প্রচারও করা হয়।

জানা যায়, ঝালকাঠির নলছিটিতে মাইকিং করে প্রচার করা হয় চরমোনাই এর পীর সাহেব স্বপ্নে দেখেছেন, ‘ফজরের আগে অজু করে এক গ্লাস পানিসহ তিনটা থানকুনি পাতা খেলে করোনাভাইরাসে ধরবে না’। এরপর থেকে পুরো নলছিটিসহ আশপাশের বিভিন্ন অঞ্চলে হিড়িক পড়ে যায় থানকুনি পাতা সংগ্রহে। লোকজন ভিড় করে স্থানীয় ইমাম সাহেবদের কাছে ঘটনার ভিত্তি বা সত্যতা জানার জন্য।

অন্যদিকে পটুয়াখালীর রাঙাবালী উপজেলায় খবর ছড়িয়ে পড়ে জৈনপুরী পীর সাহেব এমন স্বপ্ন দেখেছেন। মুহুর্তেই এ নিয়ে গুজব ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। তবে সচেতনরা কেউ কেউ উপস্থিত লোকদের বুঝানোর চেষ্টা করেছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে বিভিন্নজন বিভিন্ন মন্তব্য আর পোস্ট করতে থাকেন। ফলে মুহুর্তের মধ্যে সারাদেশে এ গুজব ছড়িয়ে পড়ে। কেউ কেউ গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানালেও আরো দ্রুত বেগে বিভিন্ন মাধ্যমে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়ে।

রাত থেকে শুরু করে দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে এর সত্যতা জানতে চেয়ে অনেকে ফোন করেছেন। এমনকি রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন জায়গা থেকেও ফোন এসেছে এ ব্যাপারে জানাতে চেয়ে। উত্তরা থেকে মনিরুল ইসলাম, জামালপুর থেকে আশরাফুল আলমসহ অনেকে ফোন করে এ ব্যাপারে বিস্ময় প্রকাশ করে এবং ঘটনার সত্যতা জানতে চায়।

এ বিষয়ে বরিশাল এর চরমোনাই-এ অবস্থানরত চরমোনাই এর পীর সাহেব এর পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত বাংলাদেশ কোরআন শিক্ষাবোর্ড এর সচিব- মাওলানা এম শামসুদদোহা তালুকদার জানান, আজকে মধ্যরাতে (মঙ্গলবার দিবাগত রাত) আমার আপন ভাই পীর সাহেব হুজুরের স্বপ্নের কথা জানতে চায়। আসলে এটা পুরোটাই গুজব। এর কোনো ভিত্তি নাই। চরমোনাই পীর সাহেব বা জৈনপুরী পীর সাহেব বা যেখানে যে নামেই এটা ছড়িয়েছে; যারা ছড়িয়েছে তারা মানুষকে বিভ্রান্ত করেছে।

তিনি জানান, প্রায় মাঝরাত পর্যন্ত পীর সাহেব হুজুর মুফতী সৈয়দ রেজাউল করীম ও নায়েবে আমীর হুজুর মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম সাহেবের সাথেই ছিলাম। এমন কিছু শুনিনি। এমনকি যে সময় থেকে এ গুজব রটা শুরু হয় তখনো পীরসাহেবদ্বয় ঘুমাননি পর্যন্ত।

তিনি বলেন, ‘আমরা চরমোনাই ছিলাম, পীর সাহেব হুজুরদের কাছে ছিলাম কিন্তু আমরা শুনলাম না। অথচ দেশব্যাপী গুজব রটে গেছে। যারা এমন সব গুজব ছড়ায় তারা আসলে মানুষকে বিভ্রান্ত করে পৈচাশিক আনন্দ পায়। এদের খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনা উচিত’।

তবে কে, কখন, কোথা থেকে প্রথম এমন গুজব ছড়িয়েছে তা জানা যায়নি। রাঙ্গাবালীর স্থানীয় এক বাসিন্দ বলেন, ‘এমন গুজবের উৎপত্তি কোথা থেকে হয়েছে তা আমরা জানি না। কোনো পীর স্বপ্ন দেখেছেন আমরা শুনিনি। আমাদের এখানে ছড়ানো হয় জৈনপুরী পীর এমন স্বপ্ন দেখেছেন। এর সত্যতা খুঁজে পাওয়া যায়নি’। সুত্র: (পি বি)

Sharing is caring!