করোনার ভয় আর নয়: কবি তোফায়েল আহমেদ

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত মার্চ ২৫, ২০২০
করোনার ভয় আর নয়: কবি তোফায়েল আহমেদ

আওয়ার বাংলাদেশ: বর্তমানে ‘করোনা’ ভাইরাস মহামারী রুপ ধারণ করেছে৷ নিমিষেই কেড়ে নিচ্ছে হাজার হাজার প্রাণ। দিনের পর দিন এর ভয়াবহতা বাড়ছে।আতঙ্ক বিরাজ করছে প্রতিটি দেশে। এ আতঙ্ক থেকে বাদ পড়েনি আমাদের দেশও। কিছুদিন পূর্বে আমাদের দেশ করোনা মুক্ত থাকলেও এখন সংক্রমিত হচ্ছে এ দেশেও৷ এ পর্যন্ত দুই জন মারা গেছে৷ চৌত্রিশজন আক্রান্ত ধরা পড়েছে৷ শত শত লোক কোয়ারেন্টাইনে আছে৷

করোনা’সহ যত প্রকার ভয়াবহ রোগ, সব মানুষের হাতের কামাই। মহান আল্লাহ বলেন :

ظَهَرَ الْفَسَادُ فِي الْبَرِّ وَالْبَحْرِ بِمَا كَسَبَتْ أَيْدِي النَّاسِ لِيُذِيقَهُم بَعْضَ الَّذِي عَمِلُوا لَعَلَّهُمْ يَرْجِعُونَ

অর্থঃ “স্থলে ও জলে মানুষের কৃতকর্মের দরুন বিপর্যয় ছড়িয়ে পড়েছে। আল্লাহ তাদেরকে তাদের কর্মের শাস্তি আস্বাদন করাতে চান, যাতে তারা ফিরে আসে”৷ (সুরা রুম)

চাইলেই এই ভাইরাস থেকে বাঁচা সম্ভব নয়। কারণ ভাইরাস দেয়ার মালিক আল্লাহ আর দূর করার মালিকও আল্লাহ। এই ভাইরাস ঠেকাতে আপনি আমি কিছুই করতে পারবোনা। এমন পরিস্থিতিতে হতাশ না হয়ে আল্লাহর উপর ভরসা রাখতে হবে। মহান আল্লাহ বলেনঃ “যে আল্লাহর উপর তাওয়াক্কুল করে, আল্লাহই তার জন্য যথেষ্ট”৷ (সুরা ত্বলাক, ৩)

অন্যস্থানে মহান আল্লাহ বলেন : “আপনি বলুন, আমাদের কাছে কিছুই পৌঁছবে না, কিন্তু যা আল্লাহ আমাদের জন্য রেখেছেন৷ তিনি আমাদের কার্যনির্বাহক। আল্লাহর উপরই মুমিনদের ভরসা করা উচিত”। (আত তাওবাহ্ – ৫)

মহান আল্লাহ এই বিপদ আমাদের দিয়েছেন৷ আবার তিনিই আমাদের রক্ষা করবেন৷ এই বিশ্বাসটুকু অন্তরে গেঁথে নিতে হবে। অটুট রাখতে হবি তার উপর বিশ্বাস৷ সর্বাবস্থায় তার ইবাদতে ব্যস্ত থাকতে হবে। তবেই হয়তো করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি সম্ভব হবে।

আল্লাহ বলেনঃ “আর আল্লাহর কাছেই আছে আসমান ও যমীনের গোপন তথ্য৷ সকল কাজের প্রত্যাবর্তন তাঁরই দিকে৷ অতএব, তাঁরই বন্দেগী কর এবং তাঁর উপর ভরসা রাখ৷ তোমাদের কার্যকলাপ সম্বন্ধে তোমার পালনকর্তা কিন্তু বে-খবর নন”। (হুদ – ১২৩)

করোনা’ থেকে বাচতে নিচের বিষয়গুলো খেয়াল করুন৷ *সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে৷ *বিনা প্রয়োজনে বের হওয়া যাবেনা৷ রসূল (সঃ) বলেছেন, “যখন কোনো দেশে মহামারি দেখা দিবে, তখন যেনো অন্য দেশের লোক প্রবেশ করতে না পারে এবং এ দেশ থেকে কেউ যেনো অন্য দেশে না যায়”৷

*মুখে মাক্স ব্যবহার করুন৷ *সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করুন বারবার৷ *হাঁচি কাশি আসলে রুমাল দিয়ে মুখ ঢাকুন৷ *আক্রান্ত ব্যক্তি থেকে দূরে থাকুন৷ *যেখানে সেখানে কফ, থুথু ফেলবেননা৷ *আল্লাহর ইবাদত করুন। আল্লাহর উপর তাওয়াক্কুল বা ভরসা রাখুন৷ আল্লাহর দরবারে কাঁদুন। *৫ ওয়াক্ত নামাজ জামাতে পড়ুন৷ *নিচের দোয়াগুলো পড়ুনঃ আনাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত, নবী (সঃ) বলতেনঃ “হে আল্লাহ! আমি আপনার কাছে আশ্রয় চাই শ্বেত, উন্মাদনা, কুষ্ঠ এবং সমস্ত দুরারোগ্য ব্যাধি হতে”৷ (আবু দাউদ,১৫৫৪)

করোনা ভাইরাস হয়ে মৃত্যু বরণ করা ভয়াবহ। নেই জানাযা নামাজ৷ নেই শেষ গোসল। তাইতো এমন মৃত্যু থেকে বাঁচতে রসূল (সঃ) আল্লাহর নিকট আশ্রয় চেয়ে দোয়া শিখিয়েছেন,

عَنْ أَبِي الْيَسَرِ، أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم كَانَ يَدْعُو ‏ “‏ اللَّهُمَّ إِنِّي أَعُوذُ بِكَ مِنَ الْهَدْمِ وَأَعُوذُ بِكَ مِنَ التَّرَدِّي وَأَعُوذُ بِكَ مِنَ الْغَرَقِ وَالْحَرَقِ وَالْهَرَمِ وَأَعُوذُ بِكَ أَنْ يَتَخَبَّطَنِي الشَّيْطَانُ عِنْدَ الْمَوْتِ وَأَعُوذُ بِكَ أَنْ أَمُوتَ فِي سَبِيلِكَ مُدْبِرًا وَأَعُوذُ بِكَ أَنْ أَمُوتَ لَدِيغًا ‏”‏

অর্থঃ আবুল ইয়াসার (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রসূলুল্লাহ (সঃ) এরূপ দু’আ করতেনঃ “হে আল্লাহ! আমি আপনার কাছে চাপা পড়ে মৃত্যুবরণ হতে আশ্রয় চাই৷ আশ্রয় চাই গহ্বরে পতিত হয়ে মৃত্যুবরণ হতে৷ আমি আপনার নিকট হতে আশ্রয় চাই পানিতে ডুবে ও আগুনে পুড়ে মৃত্যুবরণ হতে এবং অতি বার্ধক্য হতে। আমি আপনার নিকট আশ্রয় চাই মৃত্যুকালে শয়তানের প্রভাব হতে৷ আমি আশ্রয় চাই আপনার পথে জিহাদ থেকে পলায়নপর অবস্থায় মৃত্যুবরণ এবং বিষাক্ত প্রানীর দংশনে মৃত্যুবরণ হতে”। (সুনানে আবু দাউদ,১৫৫২)

 

লেখক:-

কবি তোফায়েল আহমেদ

তরুণ কবি ও লেখক

Sharing is caring!