আল্লামা বাবুনগরীকে অব্যাহতি দিয়ে হাটহাজারী মাদ্রাসায় শীর্ষপদে রদবদল

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত জুন ১৭, ২০২০
আল্লামা বাবুনগরীকে অব্যাহতি দিয়ে হাটহাজারী মাদ্রাসায় শীর্ষপদে রদবদল
  • আওয়ার বাংলাদেশ ডেস্ক

আল জামেয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মইনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার সহকারী পরিচালকের দায়িত্ব থেকে হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে অব্যাহতি দিয়ে এ পদে মাদ্রাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস মাওলানা শেখ আহমদকে নতুন করে মুঈনে মুহতামিম (সহযোগী পরিচালক) হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

বৈঠকে বর্তমান মহাপরিচালক আল্লামা আহমদ শফী আমৃত্যু এ পদে থাকবেন বলেও সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আজ বুধবার ১৭ জুন হাটহাজারী মাদরাসার বর্তমান মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফীর আহবানে জামেয়ার সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী কমিটি (মজলিসে শূরা)’র গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠক শেষে মাওলানা নোমান ফয়জী উপস্থিত সকলের সামনে শুরা কমিটির সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন।

মাওলানা নোমান ফয়েজী জানান, আল্লামা শাহ আহমদ শফীর উপস্থিতিতে হাটহাজারীর বর্তমান সহকারী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী শুরা কমিটির সদস্যদের মুঈনে মুহতামিমের পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে ইস্তফা দিয়েছেন। শুরা কমিটির সদস্যরা উক্ত ইস্তফার বিষয়টি গ্রহণ করেছেন এবং আল্লামা বাবুনগরীর স্থলে জামেয়ার সিনিয়র মুহাদ্দিস আল্লামা শেখ আহমদ সাহেবকে হযরত মুহতামিম সাহেব হুজুরের মুঈন হিসেবে নির্ধারণ করেছেন।

মাওলানা নোমান ফয়েজী আরও জানান, হাটহাজারীর বর্তমান মুহতামিম আল্লামা আহমদ শফির অবর্তমানে পরবর্তী শুরা কমিটির বৈঠকের আগ পর্যন্ত জামেয়ার পরিচালনার দায়িত্ব আল্লামা শেখ আহমদ সাহেব পালন করবেন।

 

জানা যায়, বুধবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল সোয়া ৩টা পর্যন্ত শূরা কমিটির বৈঠক চলে। বৈঠক শুরুর আড়াই ঘণ্টার বেশি সময় পর দুপুর পৌনে ১টার দিকে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী উপস্থিত হন।

সর্বশেষ ২০১৭ সালের ১৬ জুলাই মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির মজলিশে শুরার বৈঠকের সিদ্ধান্ত মতে আল্লামা বাবুনগরীকে সহযোগী পরিচালকের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক হেফাজত নেতা জানিয়েছেন, নতুন সিদ্ধান্ত হিসেবে আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুর পর শেখ আহমদই মাদ্রাসার মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করবেন।

আজকের বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন জামেয়া প্রধান, হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন শুরা কমিটির সদস্য আল্লামা আবদুল কুদ্দুস সাহেব, আল্লামা আবুল কাসেম সাহেব, আল্লামা নুরুল আমীন সাহেব, আল্লামা সোহাইল নোমানী সাহেব, আল্লামা আবুল হাসান সাহেব, মাওলানা সালাহউদ্দিন সাহেব, মাওলানা ওমর ফারুক সাহেব,আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদী সাহেব, মাওলানা নোমান ফয়জী সাহেব ও মাওলানা মাহমুদুল হাসান সাহেব।

 

এ দিকে শূরা বৈঠক তথা মাদ্রাসার শীর্ষ পদে শাহ আহমদ শফীর উত্তরসূরি কে হবেন, তা নিয়ে তৎপরতায় প্রকাশ্যে আসা দুই পক্ষের দ্বন্দ্বে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে এমন শংকায় হাটহাজারী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে পুলিশের অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন ছিল।

Sharing is caring!