আফগানিস্তানের জামে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার দায়ী অস্বীকার করল তালেবান

আওয়ার বাংলাদেশ
প্রকাশিত জুন ৫, ২০২০
আফগানিস্তানের জামে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার দায়ী অস্বীকার করল তালেবান

In this photo released by the Syrian official news agency SANA, the Eman Mosque is seen destroyed after a suicide bomber blew himself up, killing Sheikh Mohammad Said Ramadan al-Buti, an 84-year-old cleric known to all Syrians as a religious scholar, at the Mazraa district, in Damascus, Syria, Thursday, March 21, 2013. A suicide bomber blew himself up during evening prayers inside a mosque in Damascus Thursday, killing a top Sunni Muslim preacher and longtime supporter of President Bashar Assad and least 13 other people, state TV reported. Al-Buti's death is a big blow to Syria's embattled leader, who is fighting mainly Sunni rebels seeking his ouster. (AP Photo/SANA)

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি মসজিদে আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে মসজিদের ইমামকে হত্যা করার দায়ী অস্বীকার করেছে দেশটির তালেবান।

তালেবান মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে উজির আকবর খান জামে মসজিদের ইমাম মৌলভি মোহাম্মদ আইয়াজ নিয়াজির হত্যাকাণ্ডে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তালেবানের কোনো সম্পর্ক নেই।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কাবুলের কূটনৈতিক পাড়ায় অবস্থিত উজির আকবর খান মসজিদে সন্ত্রাসী বোমা হামলায় মৌলভি নিয়াজিসহ দু’জন নিহত ও অপর তিনজন আহত হন।

ওই ঘটনার পর আফগান প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ ওই হামলার জন্য তালেবানকে দায়ী করে বলেছিলেন, তালেবান আফগানিস্তানের বহু আলেম, মসজিদের ইমাম, ধর্মী, রাজনৈতিক ও জাতিগত নেতাকে হত্যা করেছে।

ইমাম মৌলভি নিয়াজির হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনিসহ বহু শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিবিদ বক্তব্য রেখেছেন। তবে এখন পর্যন্ত কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী ওই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেনি।

সম্প্রতি আফগানিস্তানে যুদ্ধবিরতি শেষ হয়ে যাওয়ার পর তালেবান সরকারের সঙ্গে এর মেয়াদ নবায়ন করতে অসম্মতি জানায়। এরপর থেকে দেশটির বিভিন্ন এলাকায় এই গোষ্ঠীর হামলা বেড়ে গেছে।

Sharing is caring!